অল্প পুজিতে অনলাইনে ব্যবসা করুন

অল্প পুজিতে অনলাইনে ব্যবসা করুন

যতই দিন যাচ্ছে বাংলাদেশে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার বেড়েই চলেছে। সেই সাথে বেড়ে চলেছে অনলাইনে ব্যবসার প্রসার। অনেকেই ফেসবুক পেজের মাধ্যমে শুরু করেছেন অনলাইনে বেচাকেনা । ছোট বড় অনেক পেজ দেখা যায় যারা মোটামুটি ভালোই ব্যবসা করছেন ।

অনলাইনে ব্যবসা এর কথা মাথায় আসলেই মাথায় আসে ই কমার্সের কথা।উদাহরণ স্বরুপ বলা যায়, এখনি ডট কম এর নাম?  তাদের এত বড় অফিস, এত স্টাফ, প্রচুর ইনভেস্ট । তাহলে কি ই-কমার্স আমাদের জন্য না? আপনিও চাইলে শুরু করতে পারেন ই-কমার্স ব্যবসা । বাজেট দরকার ৫০ হাজার টাকা হলেই আপাতত চলবে।

ই কমার্স ব্যসায়ের জন্য যা প্রয়োজন

ই কমার্স ব্যসায়ের জন্য মার্কেট এনালাইসিস খুব গুরুত্বপূর্ণ । বৃহৎ প্রতিষ্ঠানের মত সব প্রোডাক্ট নিয়ে নামার কোন দরকার নাই । আপনি শুধু একটা আইটেম নিয়ে শুরু করুন । ইউনিক প্রোডাক্ট আনার চেস্টা করুন । আগে খুঁজে নিন কোন আইটেম বেশি চলবে । কারা আপনার টারগেটেড কাস্টমার । ছেলে না মেয়ে ? তাদের বয়স কেমন?

আমার অভিজ্ঞতা যা বলে, অনলাইনে ছেলে অপেক্ষা মেয়েদের আইটেম বেশি সেল হয়।  বয়স টা সাধারণত ১৮ – ৩০ এর ভেতর হয়ে থাকে। মেয়েদের চোখে ভালো লাগে এমন সব কিছুই আপনি সেল করতে পারেন । জুয়েলারি, শারি, সালোয়ার – অনেক কিছু ।

একটা জিনিস মাথায় রাখতে হবে এবং এটাই সব থেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ – সেটা হচ্ছে প্রোডাক্ট কোয়ালিটি। বিজনেস একদিনের না। তাই আজেবাজে প্রোডাক্ট সেল করে বাজার নষ্ট করবেন না।

কিভাবে শুরু করবেন? মার্কেট এনালাইসিস শেষ হলে প্রোডাক্ট নিয়ে আসুন। চায়না থেকে হোল সেলে অনেক পণ্য কিনতে পারা যায়। যদিও কাস্টমস ফি দিতে হয় প্রচুর। তবে, যারা অলরেডি পণ্য আনছেন, তাদের কাছ থেকেও পণ্য হোল সেলে কিনতে পারেন।

প্রথমেই অনেক মালামাল কেনার প্রয়োজন নাই। আইটেম ২/৩ টা আনেন কিন্তু অনেক গুলা পন্য আনেন।প্রথমেই ওয়েব সাইট এর প্রয়োজন নেই। ফেসবুক পেজ থেকে শুরু করতে পারেন । ফেসবুকের ফ্রেন্ডদের সাথে শেয়ার করুন এবং তাদের বলুন পেজ টা শেয়ার করতে।

প্রথম সেল এর টাকা গুলো হিসাব করে রাখুন এবং মনে রাখবেন, ব্যবসা টিকে থাকে কিন্তু হিসাবের উপর। প্রথম সেল থেকে পাওয়া টাকা ভাগ করে ফেলুন নতুন অর্ডার, ফেসবুক অ্যাড ও কস্ট প্রক্রিয়ায়।

এর পরের অর্ডার এর মালামাল আসলে ফেসবুকে একটা অ্যাড দিয়ে দিন । সেল বেরে যাবে । অ্যাড দিতে বেশি খরচ হয় না কিন্তু বেনিফিট বেশি।

মূলত আমরা যে সকল সমস্যা মোকাবেলা করব সেটা হচ্ছে হোম ডেলিভারি কিভাবে দিবো । ফোর স্টার নামে একটা কুরিয়ার আছে, তারা হোম ডেলিভারি দিয়ে আসবে আপনার হয়ে । প্রতি অর্ডারে ৫০-৬০ টাকা নিবে।

এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত জানতে এই লিংকে ক্লিক করে আমদের সঙ্গেই থাকুন।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য লিখুন

Leave a Reply