ফ্রীল্যন্সিং সম্পর্কে আগে ভালভাবে জেনে নিন

ফ্রীল্যন্সিং সম্পর্কে আগে ভালভাবে জেনে নিন

বর্তমানে বাংলাদেশের অলিতে গলিতে আউটসোর্সিং ট্রেনিং সেন্টার আর ফেসবুক ট্রেনিং সেন্টার গড়ে উঠেছে। অনেক ট্রেনিং সেন্টার নামমাত্র কোর্স ফী নিয়ে কিভাবে স্টুডেন্টদের প্রশিক্ষণ দেয় সেটাই বুঝা যাচ্ছে না,  মাত্র ৪-৫ হাজার টাকায় একজন স্টুডেন্ট কে ৩০ টা ক্লাসে ৩০ ঘন্টা সময় দিলে ১ঘন্টা সময়ের দাম মাত্র ১০০-১২০/= টাকা,  মানে প্রায় ১.৫ ডলার। অর্থাৎ তারা অনলাইন থেকে আয় করতে পারছে না বলেই ট্রেনিং করাচ্ছে।

বাংলাদেশে এমন অনেক ফ্রীল্যান্সিং বা আউটসোর্সিং ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে যারা উচ্চ হারে প্রশিক্ষন ফী নিয়েও স্টুডেন্টদের কোর্স করানোর পর তাদের কোন গাইড-লাইন দিতে পারছে না।

অনেকে একটার পর একটা বিভিন্ন কোর্স করেও নিজের কর্মের ব্যবস্থা করতে পারছে না।

কেন এ রকম হচ্ছে ? এই প্রশ্নের উত্তর খোজা থেকে বেশী গুরুত্ত্বপূর্ণ হল আমরা নিজেদের অবস্থান থেকে কি করছি, যা আমাদের অন্তরায়ঃ

১. সরকারি ভাবে যেভাবে ফ্রীল্যান্সিং কে তুলে ধরা হচ্ছে তা এই সেক্টরকে স্ফীত করে তুলতেছে।

২. বিভিন্ন ট্রেনিং সেন্টার যেভাবে এড দিচ্ছে যেন মাউস টিপলেই টাকা – যত বেশি টিপতে পারবেন তত বেশী ডলার।

৩. যারা কাজ করতেছেন তাদের মধ্যেও একটা অংশ সেলিব্রেটি হতে চান বলে একের পর এক সেশন করে বেলুন ফুলিয়ে যাচ্ছেন।

যে যেভাবে পারতেছে মানুষের বিশ্বাস কে পুজি করে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে।

একবার এসেছিল ডেস্টিনি , প্রায় ঘরে ঘরেই ডেস্টিনি ঢুকেছিল কিন্তু টিকে থাকে নি বেশীদিন।

এরপর ডিজিটাল ডেস্টিনি হিসেবে ডুল্যান্সার , স্কাইল্যান্সার এসেছিল , টিকে নি।

আশা করছি এক সময় বিশ্বাস এর বাধ ভেঙ্গে যাবে।

আমাদের ইচ্ছা আছে কিন্তু সীমাবদ্ধতা অনেক এরই মাঝে এগিয়ে যাচ্ছি গুটি গুটি পায়ে ।

এই সপ্তাহে ২ জনের দেখা পেয়েছি, এদের মধ্যে একজন নামী প্রতিষ্ঠানে ২ টি কোর্স করলেও তা ফ্লপ হয়েছে।

একজন , গ্রাফিক্স এর কোর্স করেও বেকার।

আমার এতক্ষনের লিখা পড়ার পর আপনি ভাবছেন আমি ট্রেনিং সেন্টারকে দোষ দিচ্ছি ?

মোটেও না, আমি দোষ দিচ্ছি , আপনার নিজের অবিবেচক বিবেক আর বুদ্ধি হীনতার।

কেন?

কারন , আপনি কোর্স করার আগে একবারো ভেবে দেখেন নি আপনি ওই কাজ পারবেন কিনা ? শুনেছেন আর হুজুগে টাকা খরচ করেছেন ? সেই দায় ভার কেন অন্যের ঘাড়ে চাপাবেন ? আপনি ২০হাজার টাকা খরচ করে কোর্স করেছেন, অথচ বাসায় অনুশীলন করেন নি, নিজের দক্ষতা অর্জন করেন নি। অথবা যেখানে কম টাকা দেখেছেন সেখানে ভর্তি হয়েছেন ? আপনার কি মনে হয় — ১ হাজার টাকা বেশী নাকি ১০ হাজার টাকা বেশী । আপনাকে ১ হাজার টাকা দিলে আপনি কি ১০ হাজার টাকার মত খাটবেন ? তাহলে কিভাবে চিন্তা করেন ট্রেনিং সেন্টার আপনার জন্য ১০ হাজার টাকার শ্রম দিবে বা আপনার জন্য সার্বিক সহযোগিতা করবে। (আপনি এমনটি ভেবেছেন বলেই আর নিজের কাজে সময় দেন নি বলেই নিজেই নিজেকে ঠকিয়েছেন।)

এখনি দেখে নিন আর জানুন ফ্রীল্যান্সিং সম্পর্কে। অনেকে মনে করেন ফ্রীল্যান্সিং মানে টাকা আর টাকা। সঠিক ভাবে জানতে হলে আপনাকে পড়তেই হবে আমাদের এই লিংক যা আপনার কাজে লাগবেই , কথা দিচ্ছি আপনার সময় নষ্ট হবে না।

এ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে এই লিংকে ক্লিক করে আমাদের সাথেই থাকুন।

আসসালামুআইকুম প্রিয় পাঠক,
টিউটোরিয়ালবিডির কার্যক্রমকে এগিয়ে নিতে আপনি আর্থিক ভাবে সহায়তা করতে পারেন। আর্থিক সহায়তা পেলে আরো ভাল মানের টিউটোরিয়াল প্রকাশ করার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করবো। আর সব টিউটোরিয়ালই সবার জন্য উম্মুক্ত থাকায় আপানার আর্থিক সহায়তায় অনেকেই উপকৃত হবে।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য লিখুন

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.