আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সের জন্য প্রসেসরের নতুন ধরনের অবকাঠামো

ভবিষ্যতের প্রসেসর কোরগুলো এমনভাবে ডিজাইন করা হবে যাতে অতিসহজ হবে এআই এর মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেওয়া। আর এটি বর্তমান হয়ে গেছে এপলের হাত ধরে।

এপল তার A11 প্রসেসরের ডিজাইনটি এমনভাবে করেছে যাতে এআই টাস্ক নির্দিষ্ট কোর এ পাঠাবে এবং তা অন্য সাধারন প্রসেসর এর চেয়ে অনেক অনেক দ্রুত সম্পাদন করতে পারে। এপল এই পদ্ধতির কাজকে নিউরাল ইঞ্জিন বলেছে।

এরই ধারাবাহিকতায় আপনি কিছু দিন পরেই হয়তো দেখবেন-গুগল, স্যামসাং বা ইন্টেল তাদের নিজেদের জন্য ভিন্ন ডিজাইনের চীপ তৈরী করবে। আর ভবিষ্যতের দিনগুলোতে হয়তো প্রসেসর মানুষের সাথে আরো সহজভাবে যোগাযোগ করবে।

এই ধরুন এপলের ইমোজি যার মাধ্যমে আপনার চেহারার ভাব সে বুঝতে পারে এবং সেই অনুসারে কাটুর্ন তৈরী হয়। আবার এপলের সিরি এপসে কথা শুনে আপনার উত্তর দিতে বা কমান্ড নিতে পারবে। এই বিষয়গুরোর হার্ডওয়্যার সাপোর্ট দেওয়ার জন্যই চলে আসবে নতুন প্রসেসর।

তিনটি দিক থেকে হয়তো প্রসেসর উন্নত হবে-

  • ১. খরচ কম হবে
  • ২. বিদ্যুৎ খরচ কম লাগবে
  • ৩. অল্প সময়ে অনেকে অনেক এআই ডাটা হ্যান্ডেল করতে পারবে।

এমনও তো হতে পারে জিপিইউ এর মতো এআই নিয়ে কাজ করার জন্য অনেকে কো-প্রসেসর ব্যবহার করা শুরু করে দিবে।

 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.