ক্যাশিয়ার ছাড়া ৩০০০ দোকান চালু করবে আমাজন

ক্যাশিয়ার ছাড়া পানিয়র দোকান অনেক আগে থেকেই দেখা চলে আসছে। একটা কয়েন ফেললে পানীয় চলে আসতো। কিন্তু সমগ্র একটি সুপার শপেই কেশিয়ার থাকবে না। সরাসরি মনিটরিং এর জন্য অন্যন্য  লোকবলও কমানো হবে।

মানুষের পরিবর্তে মনিটরিং এর জন্য থাকবে ডেপথ সেন্সর ক্যামেরা।প্রত্যেকের মুভমেন্ট ম্যাপ মনিটরিং হবে এবং সে কোন পন্য কিনেছে তাও স্বয়ংক্রিয়ভাবে জানা যাবে। পন্যগুলো কেনারপর ক্রেতা নিজেই টাকা মোবাইল ব্যাংকিং বা কার্ডের মাধ্যমে টাকা পরিশোধ করবে।

আমাজন অবশ্য এখন শপটি পরীক্ষামূলকভাবে চালাচ্ছে। ২০২১ সাল নাগাত ৩০০০ শপ কেশিয়ার ছাড়াই চলবে। অবশ্য এক্ষেত্রে শপের টেকনোলজীক্যাল দিক আরো মানউন্নত হবে। ক্রেতাও অভ্যস্ত হবে।

জাপানেও কয়েকটি শপে ক্যাশিয়ারছাড়া দোকান চালু হয়ে গিয়েছে। মানুষ যখন অভ্যস্ত হয়ে যাবে এবং টেকনোলজী আরো উন্নত হবে আশা করা যায় ভবিষ্যতে ক্যাশিয়ার ছাড়া দোকানে ভরে যাবে।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য লিখুন

Leave a Reply