সি টিউটোরিয়াল, পর্ব ১ – (প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজের ইতিহাস)

সবাইকে শুভেচ্ছা ও স্বাগতম প্রোগ্রামিং সি টিটোরিয়ালে। এই টিটোরিয়ালের মাধ্যমে আমি চেষ্টা করব সহজ ভাষায় আপনাদের সামনে সি ল্যাংগুয়েজ কে উপস্থাপনা করার জন্য। তাহলে শুরু করা যাক।

প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ কি ?programming-languages
প্রযুক্তির এক সার্থক আবিষ্কার ও অবদান হল কম্পিউটার। এ যাবতকালে ইলেক্ট্রনিক্সের যত আবিষ্কার ও অবদান রয়েছে তার মুটামুটি সবগুলোর সংমিশ্রন হল কম্পিউটার। যেমনঃ ক্যলকুলেটর, ওডিও প্লেয়ার, ভিডিও প্লেয়ার ইত্যাদির মিশ্রন সহ আরো অনেক ফিচার এর মিশ্রনের অবদান এই কম্পিউটার। যা গান শোনাতে পারে, ছবি দেখাতে পারে, সিদ্ধান্ত নিতে পারে, তুলনা করতে পারে। কাজের দিক থেকে চিন্তা করা হলে কম্পিউটারকে আংশিক ভাবে মানুষের সাথে তুলনা করা যেতে পারে। মানুষ নিজ থেকে তার কাজ, সিদ্ধান্ত ঠিক করে নিতে পারে কিন্তু কম্পিউটার তা পারেনা। এখানেই সীমাবদ্ধতা। কোন কাজটি ঠিক কিভাবে করতে হবে তা পূর্বে থেকে নির্দেশ দিয়ে না রাখলে কম্পিউটার তা কখনই করতে পারবেনা। যে সকল মানুষ পূর্বে থেকে নির্দেশ দেওয়ার এই মহান কাজটি করে থাকেন তারাই হলেন প্রোগ্রামার ও যে সকল কিছু পূর্বে থেকে নির্দেশ দেওয়া হয় তাই হল প্রোগ্রাম এবং যে ভাষার মাধ্যমে নির্দেশ দেওয়া হয়ে থাকে তাই প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ।

প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ কেনঃ
Thought_thumb[7]একজন ডাক্তার এর কাছে যদি জিজ্ঞাসা করা হয় “লিভার এর সমস্যার ঔষধ কি ?” ডাক্তার খুব সহজেই বলে দিতে পারবে। আবার একজন সিভিল ইঞ্জিনিয়ার কে যদি জিজ্ঞাসা করা হয় “১০ তালা ফাউন্ডশনের একটি ভবনের কলাম এর মাপ কত হবে ?” ইঞ্জিনিয়ার সাহেব খুব সহজেই বলে দিতে পারবে কত। এখন যদি ডাক্তার কে জিজ্ঞাসা করা হয় “১০ তালা ফাউন্ডশনের একটি ভবনের কলাম এর মাপ কত হবে ?” ডাক্তার কখনই বলতে পারবেনা অন্যদিকে ইঞ্জিনিয়ারকে যদি জিজ্ঞাসা করা “লিভার এর সমস্যার ঔষধ কি ?” ইঞ্জিনিয়ারও তদ্রুপ বলতে পারবেনা। কারন ডাক্তার এর লিভারের বিষয়ে জানা আছে মানে পূর্ব থেকেই জানা ছিল। ইঞ্জিনিয়ার এর বিষয়টিও তদ্রুপ। আমি কম্পিউটারকে নির্দেশ কারা হল ৫ এর সাথে ৫ যোগ করে যোগফল জানাতে, এখন কম্পিউটার কিভাবে বুঝবে আর কিভাবে তা করবে?? আমার এই সমস্যাটুক সমাধান করার জন্য কম্পিউটারকে পূর্বে থেকে নির্দেশ দিতে হবে যে,

          তুমি আমার কাছ থেকে একটা সংখা ইনপুট করবে এবং তা তোমার মেমরি সেলে জমা করে রাখবে ও আবারও আরো একটি সংখ্যা ইনপুট করবে এবং তা অন্য মেমরি সেলে জমা করে রাখবে তার পর ২ সেলের জমাকৃত সংখ্যা যোগ কর অন্য সেলে জমা করে রাখবে এবং পরিশেষে আমাকে ফলাফল দেখাবে।

যা সি ল্যাংগুয়েজে প্রোগ্রাম তৈরি করলে ঠিক এমনটা হবে-

void main(){

int num1; //1st memory sell address name
int num2; //2nd memory sell address name
int sum; //Finally sum memory sell address name

printf(“Enter You 1st Number: “); // Computer tall you enter your 1st Number
scanf(“%d”,&num1); //Give you 1st Number
printf(“\nEnter You 2nd Number: “); // Computer tall you enter your 2nd Number
scanf(“%d”,&num2); //Give you 2nd Number
sum = num1+num2; // Computer processor sum this 2 number
printf(“\nYour inputed 1st and 2nd number Sum is: %d\n”,sum); // And finally Computer Show you that two digit number sum
getch();
return;
}

sc c rএখন পূর্বে থেকে আমাকে কম্পিউটারকে নির্দেশ মানে জানিয়ে রাখতে হবে কি ভাবে কি করবে। এই নির্দেশ দেওয়াই হল প্রোগ্রাম। আর নির্দেশ দেওয়ার জন্যই প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ। বিষয়টা ঠিক ডাক্তার ও ইঞ্জিনিয়ার এর মত তারা পূর্বে পড়াশুনা করে জেনে রেখেছে কিভাবে কি করতে হবে। ঠিক একই ভাবে আরো নানারকমের সমস্যা সমাধানের জন্য প্রোগ্রামাররা নানা রকমের প্রোগ্রাম লিখে থাকে। যেমনঃ ছবির আক করার জন্য ‘এডবি ফটশপ’ লিখার জন্য ‘মাইক্রসফট ওয়ার্ড’

আজকের মত এপর্যন্তই পরবর্তী পর্বে কথা হবে,  সবাই ভাল থাকুন ও অবশ্যই সুস্থ থাকুন এই প্রতাশ্যায় আজকের মত বিদায়।

6 thoughts on “সি টিউটোরিয়াল, পর্ব ১ – (প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজের ইতিহাস)”

    1. সি টিউটোরিয়াল e C lanuuage sikhte parben. ji apnaderke sikhnotai amader uddeso @hamidul vi

Comments are closed.