ইউটিউব নিয়ে অদ্ভুত মজার কিছু তথ্য

নিঃসন্দেহে বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট ইউটিউব। অনেকের কাছে অনলাইনে বিনোদনের প্লাটফর্মও ইউটিউব। চলতি সময়ে এই ভিডিও ভিত্তিক ওয়েবসাইটের জনপ্রিয়তা এতোই তুঙ্গে যে, নিজের অজান্তেই ঘন্টার পর ঘন্টা ভিডিও দেখে ইউটিউবে সময় ব্যয় করছে ব্যবহারকারীরা। তাই ভাললাগার এই প্লাটফর্ম সম্পর্কে কৌতুহলেরও শেষ নেই আমাদের। আর তাই আজকের পোস্টে থাকছে ইউটিউব নিয়ে অদ্ভুত সব মজার তথ্য সম্ভারঃ

২৫টি অদ্ভুত মজার তথ্য

  1. পেপালের সাবেক ৩ কর্মী বানিয়েছিলেন ইউটিউব।
  2. ইউটিউব যাত্রা শুরু করে ২০০৫ সালের ভ্যালেন্টাইন ডে -তে! (ইউটিউব প্রতিষ্ঠাঃ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০০৫)
  3. পেপালকে যখন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান eBay কিনে নিয়েছিল। তখন পেপাল কর্মীদেরা কিছু আর্থিক বোনাস পেয়েছিল। আর পেপালের সাবেক ৩ কর্মী অর্থাৎ ইউটিউবের প্রতিষ্ঠাতারা সেই বোনাসকেই ইউটিউব শুরুর মূল্ধন হিসেবে কাজে লাগিয়েছিলেন।
  4. বর্তমানে ইউটিউব ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট হিসেবে পরিচিত হলেও এর যাত্রা শুরু হয়েছিল ভিডিও ডেটিং সাইট হিসেবে। প্রথমে এর নাম ছিল “টিউন ইন হুক আপ”।
  5. প্রতিষ্ঠার মাত্র ১৮ মাস পরেই ইউটিউবকে ১.৬৫ বিলিয়ন ডলারে কিনে নেয় গুগল।
  6. ইউটিউবের আছে ১ বিলিয়নের বেশি নিবন্ধিত ব্যবহারকারী। যা সারাবিশ্বের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের এক তৃতীয়াংশের সমান।
  7. আপনার ইউটিউব চ্যানেলে যদি থাকে দশ হাজারের বেশী সাবস্ক্রাইবার। তবে আপনার জন্য রয়েছে ইউটিউবের বিনামূল্যে ব্যবহারযোগ্য একটি শ্যুটিং স্টুডিও। যেটি মূলত লস এঞ্জেলসে অবস্থিত।
  8. প্রতি মিনিটে ইউটিউবে যে পরিমান ভিডিও আপলোড করা হয় সেগুলোর সর্বমোট ব্যাপ্তিকাল ১০০ ঘন্টার বেশি।
  9. ২০১৪ সালে ইউটিউবের জনপ্রিয় কন্টেন্ট ক্রিয়েটর Grumpy Cat যে পরিমান অর্থ আয় করেছেন তা ছিল অস্কার প্রাপ্ত অভিনেত্রী Gwneth Paltrow এর আয়ের চেয়েও বেশি।
  10. গুগল নিঃসন্দেহে অনলাইন জগতের সবচেয়ে বড় সার্চ ইঞ্জিন। কিন্ত তার পরেই অবস্থান ইউটিউবের। ইয়াহু, বিং এবং আস্ক ডট কমকে একত্রিত করলেও ইউটিউব তার চেয়েও বৃহৎ সার্চ ইঞ্জিন।

সোর্সঃ রুপায়ন

আরো পড়ুনঃ
" data-layout="standard" data-action="like" data-size="small" data-show-faces="true" data-share="true">

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য লিখুন

Leave a Reply