প্রজাপতির জীবন চক্র

প্রজাপতি… প্রজাপতি… কোথায় পেলে ভাই এমন রঙিন পাখা…

এই সাথে খুবই সুন্দর ও বিশ্রী অনুভূতি লাগতে পারে একমাত্র প্রজাপতির জীবন চক্রে।

১. প্রাপ্ত বয়স্ক প্রজাপতি কয়েকসপ্তাহ মাত্র বেচে থাকে আর এই সময়ে সে ডিম পারে একটু সেতসেতে একটু অন্ধকারাচ্ছন্ন জায়গায়। ফুলে ফুলে ঘুরে পরাগায়ন ঘটিয়ে সৌন্দর্য বিলিয়ে কয়েকসপ্তাহে মারা যায়।

২. ডিম থেকেই নতুন প্রজাপতি বেড়িয়ে আসার কথা তাই না? না পাখিতের মতো ডিম থেকে নতুন প্রজাপতি বের হবে না কিন্তু। ভিন্ন ভিন্ন প্রজাতির প্রজাপতি ভিন্ন ভিন্ন গাছের পাতা পছন্দ করে ডিম পারে। কয়েক সপ্তাহে ডিমগুলো পরিপত্থ হয়। কিছু প্রজাপতি অবশ্য কয়েক মাসও নেয়।

৩. অবশেষে ডিম থেকে বের হয়ে আসে লার্ভা। হেটে হেটে সে খাবার গ্রহণ করে। প্রথমে তার সেলটি খেয়ে ফেলে, পরে যে পাতায় ছিল তা খাওয়া শুরু করে। কখনো এডাল থেকে ও ডালে যায়। তার কাজ খাওয়া, মোটা হওয়া এবং খাবার সঞ্চয়।

৪. এবার সে যথেষ্ট মোটা ও বড় হয়ে উঠেছে। একপ্রকার হরমোনের প্রভাবে এবার সে নিজেই খাওয়া বন্ধ করে দিবে। পাতার নিচের অংশে পুপা তৈরী করে এবং নিজে এটার ভিতর প্রবেশ করবে। এই অবস্থাটি ক্রসালিস বলে।

৫. ক্রিসালিসের মধ্যে সে পরিবর্তিত হতে থাকে। এটি একটি পরিপূর্ণ প্রজাপতিতে রূপ পেতে থাকে। প্রথমে পাখাটি ছোট ও ভেজা থাকে। ছোট প্রজাপতিটি বার বার পখা ঝাপটাতে থাকে। আরো বেশি রক্ত প্রবাহিত হয়। কয়েক ঘন্টার মধ্যে সে উড়তে শিখে ফেলে। আলহামদুলি্লাহ।

সোবহানাল্লাহ। আল্লাহর সৃষ্টি করত সুন্দর।