মন্তব্য বাড়ানোর উপায়

কেমন আছেন? আমার টিউটরিয়ালগুলো আপনাদের কেমন লাগে? ইদানিং আমি ব্লগিং এর উপর বেশ জোর দিয়ে কথা বলছি। অনেক পাঠকই পড়ছেন। অনেকেই আমাকে ফোন করে বিভিন্ন প্রশ্ন করছেন বিভিন্ন বিষয়ে। আমার জানার পরিসর অনেক ছোট, তবে শেয়ার করার ইচ্ছা অনেক। সব কথা সহজভাবে বলতে চেস্টা করি। ইদানিং টিউটরিয়ালবিডিতে মতামতের পরিমান কম দেখছি। এর বিভিন্ন করন হতে পারে। একটি কারন হয়তো-“একসময় বাংলা ব্লগের/সাইটের সংখ্যা ছিল হাতে গণা। এখন বেড়েছে তাই মন্তব্যকারীর পরিমানও কমেছে।” একটি টিউটরিয়াল লিখে অধির আগ্রহে চেয়ে থাকি মন্তব্যের দিকে। মতামত বাড়ানোর উপায় খুজতে গিয়ে নিরুপায় হয়ে এ পোস্টের অবতারনা। তাহলে দেখুন: মন্তব্য বাড়ানোর উপায়ের উপর আজকের এই পোস্ট। আমার আগের পোস্টেও মতামতের বেপারে সচেতন হওয়ার কথা বলেছিলাম।

১. স্প্যাম চেক করার জটিল কোন পথ বেছে না দেওয়া

ক্যাপচার মাধ্যমে অবশ্য ফালতু মন্তব্য রোধ করা যায় তবে এ পদ্ধতিতে অনেকে মন্তব্য দেওয়ার বেপারে নিরুতসাহিত হবে।

২. মন্তব্য মডারেশন না করা

মন্তব্য মডারেশনের পর প্রকাশ করলে আলোচনার ধারাবাহিকতা বিঘ্ন হতে পারে। তাই মন্তব্য প্রকাশিত হওয়ার পর মডারেশন করা যেতে পারে।

৩. রেজিস্ট্রেশনের বাধ্যবাদকতা তুলে দেওয়া

রেজিস্ট্রেশনের কারনে মন্তব্যের পরিমান অনেক অনেক কমে গেছে এমন অনেক সাইট দেখেছি। অবশ্য এতে অনেকে রেজিস্ট্রেশের পরিমান বেড়ে যায়।

৪. মতামতের জবাব দেওয়া ও তার সাইটের (যদি থাকে) ব্যাপারে মন্তব্যে বলা

মতামতের জবাব দেওয়াটা খুবই প্রয়োজনীয় একটি বেপার। আপনার সাথে মতামতকারীদের সম্পর্কের উন্নয়নের জন্য জবাব দেওয়াটা খুবই জরুরী।

৫. সর্বাধিক মতামত দাতার তালিকা প্রকাশ করা

সর্বাধিক মতামত দাতার নাম ও ওয়েবসাইটের লিঙ্কের (যদি থাকে)তালিকা সাইডবারে প্রকাশ করলে মতামত দাতারা উতসাহিত হয়ে বেশি বেশি মন্তব্য করবে।

৬. সাম্প্রতিক মতামতের তালিকা প্রকাশ

সাম্প্রতিক মতামতের তালিকা সাইডবারে দিলে মতামত দাতা আরও অনুপ্রানিত হবে। তাছাড়া কোন মন্তব্যের জবাবও পেতে সহায়তা পাওয়া যাবে।

৭. খুবই আন্তরিক ভাব নিয়ে ব্লগ শুরু করা

ব্লগের শুরুতে একটু আন্তরিক ভাব নিয়ে কথা বলুন। আপনি যদি বলেন-” আমি আজ এ বিষয়ে লিখবো।” তার চেয়ে ভাল হয় যদি লিখেন-“আমার মাথায় আজ একটি চিন্তা আসলো যে..”।

৮. ব্লগের শেষে সুন্দরতম কথাটি বলা

ব্লগের শেষে পাঠককে উদ্দেশ্য করে কিছু লিখুন।ধন্যবাদ জানান (এভাবে-“আপনার মূল্যবান সময় দিয়ে আমার লেখাটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।”)।

৯. সুন্দর একটি শিরোনাম দেওয়া

ব্লগের শিরনামটিও সুন্দর ও মানান সই হতে হবে। হতে হবে বন্ধুত্ব পূর্ণ।

১০. পোন্স্টে নাম ও লিঙ্ক প্রকাশ করে মতামত দাতার মতামত উল্লেখ করা:

পোস্টের মাঝে কোন মতামত দাতার মতামতের লিংক সহ কথাটি উল্লেখ করেন তাহলে মন্তব্যকারী অনুপ্রানিত হবে।

১১.প্রশ্নের উত্তর ও মতামতের উত্তর দেওয়া

মতামতে অনেকে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান চাইতে পারে তাদের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান দিন। প্রশ্ন করলে তার উত্তর দিন। নিয়মিত একটি সম্পর্ক সৃষ্টি করুন।

১২. এভাটার/ছবি যুক্ত করা দেওয়া

আপনার মন্তব্যের সাথে এভাটার যুক্ত করুন। এতে আকর্ষনীয় হবে আপনার মতামতটি।

১৩.পোস্টের শেষে প্রশ্ন করা

এটি আরেকটি কৌশল । আপনার পাঠকদের কাছ থেকে কোন বিষয়ে মতামত,সিদ্ধান্ত, জরিপ চালাতে পারেন। অথবা বলতে পারেন আরও কিছু বাদ থাকলে আপনারা মতামতে বলুন।
মতামত বাড়ানোর আরও কোন উপায় থাকলে আপনারাও মতামতের মাধ্যমে বলুন। আশা করি আমার সাথে থাকবেন। সবাইকে ধন্যবাদ।

10 thoughts on “মন্তব্য বাড়ানোর উপায়”

  1. লেখা পড়ে ভাল লাগলো। মনে হয় কাজ করতে সাহায্য করবে আপনার লেখাটি।

  2. এভাটার/ছবি যুক্ত করা দেওয়া ।ছবি যুক্ত করে দিলে যদি ভিজিটর বেশি হয় তাহলে মনে হয় সাইট স্লো হয়ে যায়।হাসান ভাই এর সাইটে দেখেছিলাম ছবি বন্ধ করে দিয়ে ছিল।

    1. @নিঝুমদ্বীপআমিও ভাবছি সাইটের কিছু ছবি বন্ধ করে দিব। সাইটে নতুন ভিজিটরের জন্য ছবিটা একটা গুরুত্বপূর্ণ বেপার কিন্তু। একজন নতুন ভিজিটর এসেই আপনার সাইটে নিয়মিত হবে না। ভিজিটরের চোখে চোখ রেখে চলতে হয়। নিয়মিত ভিজিটরের জন্য ফাস্ট সাইট কাম্য, ছবি নয় তার কাছে কনটেন্টই সব। তবে এভাটারের ছবি খুব একটা স্লো করে না।

    1. @Raj, আমরা চেস্টা করবো HTML এ আরও কিছু টিউটরিয়াল লিখতে অল্প কয়েকজনের হাতের ছোয়ায় টিউটরিয়ালবিডি বেড়ে উঠছে। আমাদের আরও লেখক প্রয়োজন। আরেকটা কথা-মতামতে আপনার ছবি যুক্ত করতে gravatar.com এ রেজিস্ট্রেশন করে ছবি আপলোড করুন pls ।

  3. সত্যি অনুপ্রানিত হলাম আপনার উপস্থাপনার সহজ সরল সাবলিলতায় ও আন্তরিকতায়।

    1. @Raj,ধন্যবাদ, রাজ ভাই। আসলে মন্তব্যকে আমি সংখ্যার হিসেবে দেখতে চাই না। আন্তরিক ও আলোচনামূলক মতামতই কাম্য। আপনার উপস্থিতি আমার প্রেরণার আর লেখার উপাদান। সাথে থাকুন। ভাল থাকুন।

  4. Pingback: বাংলা টিউটরিয়াল|বাংলা ভাষায় বিশ্বের প্রথম টিউটরিয়াল সাইট | Bangla Tutorials » Blog Archive » আরএসএস ফিড সম্পর্ক

  5. Pingback: মতামত দেওয়ার সময় যে ১০ টি কথা মনে রাখা দরকার « টিউটোরিয়াল

Comments are closed.