শুনেছি মানুষ সামাজিক জীব,সেই সাথে ব্লগও কি…

গদবাধা পড়া পড়েছিলাম এক সময়-মানুষ সামাজিক জীব, সে একা থাকতে পারে না। তাকে নির্ভর করতে হয় অন্যের উপর। এখন দেখছি ব্লগও সামাজিক জীব। এখন কথা হলো অলাইনেও আমাদের একটা সমাজ আছে। সেই সমাজে কেউ বা সময় দেয় কেউ বা দেয় না। সাধারনত: সামাজিক নেটওয়ার্ক বলতে নামী দামী কিছু সাইট যেখানে অনেকে বসবাস করে, একে অন্যের খোজ খবর রাখে সেই নেটওয়ার্কেই বুঝাতে চাচ্ছি-তথা ফেসবুক,টুইটার,গুগল বাজ ইত্যাদি। আপনার যদি একটা ব্লগ থাকে আর সেটা যদি সমাজের বাইরে রাখতে না চান তাহলে প্রতিটি নতুন পোস্ট প্রকাশ করার সাথে সাথে আপনার সমাজের মানুষগুলোকে,আপনার বন্ধু বান্ধব,আত্নিয়স্বজন যারা আপনাকে বা আপনার ব্লগকে অনুসরণ করতে চায় তাদেরকে জানিয়ে দিন। হয়তো তারা আপনার কথা মনে রাখবে। ব্লগে ট্রাফিকের একটা অংশ হবে এই সামাজিক নেটওয়ার্ক।

ফেসবুক

ফ্যান পেজ

ফেসবুক ফ্যানপ্যাজের মাধ্যমে আমি সবচেয়ে বেশি ট্রাফিক পেয়ে থাকি। পাঠকগণও এই সর্বশেষ আপডেট জানতে আগ্রহী তাই টিউটরিয়ালবিডির ফ্যানপেজকে ৫০০+ লোক অনুসরণ করছে তাই তারা ফেসবুকে লগইন করলে তাদের পাতায় আমার সর্বশেষ পোস্টের শিরোনাম, বর্ণনা আর লিঙ্কটি চলে আসে।সবার জানার কারনে আমার এ সাইটটি একটি পরিচিতি ও ট্রেটমার্ক আকার ধারণ করার পথ সহজ হয়। আরেকটা ব্যাপার হলো-সবার সবকিছু সবসময় প্রয়োজন হয় না। যখন প্রয়োজন তখনই আমার সাইটে তারা আসবে-অথবা অন্যকে আসতে বলবে। তাই এ ব্যাপারে সংকোচের কোন কারন নেই। বন্ধুদের দাওয়াত দিন,সমাজের মানুষকে দাওয়াত দিন আপনার নেটওয়ার্কে যুক্ত হতে।

ফেসবুক পাতা বানাতে এখানে ক্লিক করে পাতার নামটি দিয়ে দিন। পরবর্তি ধাপগুলো অনুসরণ করে বানিয়ে নিন আপনার ফেজবুক পাতা। ফেসবুক পাতায় নিয়মিত আপডেট দিন। Discussion ও Box এ নিয়মিত পোস্ট দিন। ছবি ও ভিডিওতে সাইটের ধরণ অনুসারে মানসম্পন্ন ভিডিও শেয়ার করুন।

ফেসবুক গ্রুপ

একটি দল বানিয়ে নিলে আরও কিছু বাড়তি সুবিধা পেতে পারেন। হয়তো কোন একটি খবর আপনার গ্রুপে জানানো দরকার হতে পারে তা কেবল একটি মেসেজের মাধ্যমে সবারকাছে দিয়ে দিতে পারেন। নিজের গ্রুপের দেয়াল ও খবরের পাতায় সর্বশেষ খবরটি জানিয়ে দিলেন। আশা করা যায় এটা আপনাকে ও আপনার ব্লগকে আরও জনপ্রিয় করতে সহায়তা করবে। .

এখানে গিয়ে বানিয়ে নিন নিজের একটা দল। দলের সদস্যদের সপ্তাহে বা মাসে মেসেজ দিয়ে জানিয়ে দিন নতুন খবরাখবর। Discussion এ আপনার পোস্ট বা পোস্টের অংশ দিন নিয়মিত। ভবিষ্যতে কি কি পোস্ট লিখতে যাচ্ছেন তাও লিখুন এখানে।
এপ্লিকেশন
ফেসবুকে কয়েকটি এপ্লিকেশন আছে যার মাধ্যমে সয়ংক্রিয়ভাবে আপনার ব্লগপোস্টকে ফেসবুকে নিয়ে আসবে। এজন্য আরএসএস গিফারী ব্যবহার করে দেখতে পারেন যার মাধ্যমে আপনার আরএসএসফিড থেকে পোস্টকে সরাসরি পাতায় প্রকাশের ব্যবস্থা করবে। তবে এজন্য আপনার দেয়ালেও ওরা নিয়মিত পোস্ট করবে।

টুইটার

টুইটারে বিগত বছরের সবচেয়ে আলোচিত সামাজিক নেটওয়ার্ক ।টুইটারের মাধ্যমে সামপ্রতিক ঘটনা আর উম্মুক্ত আলোচনার বিষয়গুলো বুঝা যায়। স্থানভেদে টুইটারের আলাদা প্লাটফর্মের ব্যবস্থাও টুইটারে এনেছে নতুননত্ব। টুইটারে সহজেই নিজেকে জাহির করা যায়,স্প্যামারের আক্রমন এখানে খুব সহজ,লগইন না করেও নিয়মিত আপনার ব্লগপোস্ট দিয়ে দিতে পারেন। ফেসবুক থেকে সরাসরি টুইটারের কানেকশন করে দিলে প্রতিটি ফেসবুক স্ট্যাটাস টুইটারে আপডেট হবে। ফিডবার্ণার থেকে টুইটারের কানেকশন করে দিলে প্রতিটি নতুন পোস্ট প্রকাশিত হওয়ার সাথে সাথে টুইটারেও তা দেখা যাবে-হাতের স্পর্শ ছাড়াই।

এখানে গিয়ে ফেসবুকের পাতার সাথে টুইটার একাউন্ট কানেক্ট করে দিন,ব্যাস হয়েগেল কাজ।

গুগল বাজ

এটি নতুন একটি গুগল মাইক্রোব্লগিং সার্ভিস। এখানে সম্পুর্ণ পোস্টই লিখে দেয়া যায়। গুগল বাজ এ নিজের সাইটগুলো যুক্ত করে দিলেই নতুন পোস্ট শিরোনামগুলো সয়ংক্রিয়ভাবে পোস্ট করবে আপনার স্ট্যাটাস হিসেবে।

আশা করা যায় এর মাধ্যমে বিশাল একটা নেটওয়ার্ক গড়তে শুবিধা হবে । তাছাড়াও বিভিন্ন ফোরাম ও ব্লগে অতিথি লেখক হিসেবে নিজের অবস্থান সৃষ্টি করা যেতে পারে।
শুধু আপনি একাই কি এ কাজটি করবেন? না,আপনার পাঠকদের রয়েছে আরও বিশাল নেটওয়ার্ক তাদের নেটওয়ার্ক আপনি ব্যবহার করতে পারেন আর এজন্য সাইটে যুক্ত করুন শোয়ার করার ব্যবস্থা সম্মিলিত কোড। পরের পোস্টে ওয়ার্ডপ্রেসে সামাজিক নেটওয়ার্ক ব্যবস্থাপনা করার ব্যাপারে লিখবো , লিখবো কিভাবে আপনার পোস্টে শেয়ার বাটনের মাধ্যমে ব্লগ পোস্ট শেয়ারের ব্যবস্থা করা যায়।
আরও কিছু নেটওয়ার্কের (যেমন- ইয়াহু নেটওয়ার্ক ) এর কথা বাদ পরে গেছে আপনারা শেয়ার করুন আরও কিছু তথ্য-মতামতে । ধন্যবাদ। ভাল থাকুন।

14 thoughts on “শুনেছি মানুষ সামাজিক জীব,সেই সাথে ব্লগও কি…”

  1. Pingback: ওয়েব জগতে নতুন উদ্যোগ নেয়ার বেপারে কিছু তথ্যপূর্ণ উপদেশ | d2kbd

  2. meghmala কে: ঠিক আছে। সার্চ ইঞ্জিনের কথা এতো বেশি চিন্তা করার দরকার নাই। তবে লিংকগুলোর গুরুত্ব আছে কি নাই সেটা নির্ভর করে কতবার লিংকগুলো বিভিন্ন ওয়েবে ব্যবহার করা হয়েছে। তবে ৫০ টা ভাল আর্টিকেল না লিখে সেই দিকে সময় অপচয় করা ঠিক না। আরেকটা কথা, প্রথমদিকে ব্যাকলিংকের জন্য অন্য ওয়েবসাইটে না ঘুরে নিজের পোষ্টগুলোতে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে আগের পোষ্টগুলোর লিংক উল্লেখ করতে পারেন। এতে করে আহেতুক সময় নষ্ট হবে না।
    প্যাজ রেংক না পাওয়া পর্যন্ত মাথায় অবশ্য একটা দুশ্চিন্তা কাজ করে। ধন্যবাদ, মেঘমালা।

  3. গত কয়েকদিন ধরে ব্যাক লিঙ্ক তৈরি করতে করতে
    লেখারদিকে একটুও মনোযোগ দিতে পারিনি।
    আজ থেকে আর ব্যাক লিঙ্ক এর কথা চিন্তা করব না।
    আমার বিশ্বাস ভাল লেখা হলে এমনিই ট্রাফিক বাড়বে।
    টুইটার আমার একটু ও ভাল লাগে না।
    ফেইসবুক ই আমার পছন্দ।
    ফেইসবুক এ আমার সাইটের লিঙ্ক শেয়ার করেছিলাম।
    এখন লিঙ্কগুলো সব ডিলেট করে দিয়েছি।
    ৩০ টা আর্টিকেল লিখার আগে আর কোথাও লিঙ্ক দিব না।
    আপনার পরামর্শ আমার খুব ভাল লাগে।

    1. @নিঝুমদ্বীপ, আমার মনে হয় এই সময়টাতে দাওয়াতের কাজ না করে নিজের সাইটের কনটেন্ট বৃদ্ধি করা আর নতুন নতুন কাজ শিখার বেপারে আগ্রহ দেখালে ভাল হবে। বিজ্ঞানীরা কখনো তাদের আবিষ্কারের প্রচার করে না,এমনিতেই প্রচার হয়ে যায়-আমি নিজেও অনেকটা প্রচার বিমুখ ছিলাম,সেই সময়টাতেই ভাল ভাল কাজ করে ফেলেছি। প্রচার করতে গিয়ে অনেক কাজই করা হয় না।

    1. @ashim, আপনাকেও ধন্যবাদ,অসিম ভাই। আশাকরি এটা অনেকের কাজে লাগবে,তবে ব্যাপারগুলো একেবারে বেসিক।

  4. @রুবেল আহমেদ:ধন্যবাদ।আপনি তো মোবাইল দিয়ে ভালই কাজ করছেন। আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করুন। টিউটরিয়ালবিডিতে রেজিস্টার করুন ,আপনার লেখা মানসম্পন্ন হলে প্রকাশিত হবে।

  5. ভাইয়া আপনাকে অনেক ধন্যবাদ উপকার করার জন্য .আসলে আমার প্রাতিষ্ঠানিক কোন শিক্ষা নেই ,আমার কোন পিসিও নেই .তবে হ্যাঁ মোবাইলে নেট ব্যবহার মোটামুটি কিছুটা শিখেছি ।বড় আকারে শেখার জন্য আপনাদের মত বড় ভাই সহযোগিতা চাইছি ।যদি সুযোগ দেন তবে চেষ্টা করব মোবাইল দিয়ে নেট ব্যবহার করার অভিঞ্জতা এখানে শেয়ার করার চেষ্টা করব । আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ ।

  6. ভাইজান আমি সাইট তৈরী করতে কিছু শিখতে চাই,আমাকে শেখানো যাবে কি ?

    1. @www.newshome24.com,সাইট তৈরীর বেপারে বেশ কিছু টিউটরিয়াল দেয়া আছে। বিশেষ করে, এইচটিএমএল, সিএসএস এর টিউটরিয়ালগুলো দেখতে পারেন। সন্দেহ হচ্ছে,আপনি তো সাইট তৈরীর অনেক কিছুই জানেন মনে হয়। আরেকটা কথা, আমি মনে করি এভাবে লিঙ্কটি না দিয়ে নাম দিয়ে কমেন্টস করা ভালো হবে। আপনি চাইলে এখানে লেখালেখিও করতে পারেন। আপনাকে ধন্যবাদ।

  7. আচ্ছা ভাই এই যে পোষ্ট লিখেছেন .লেখার মাঝে মাঝে লিংক করা আছে এটা কিভাবে করতে হয় ।একটা মেইল পাঠাবেন প্লিজ ।

    1. @WORLDCUPHOME,লিঙ্ক দিতে হলে আপনাকে ছোট একটা এইচটিএমএল কোড লিখতে হবে। যেমন-<a href=”http://tutorialbd.com”>TutorialBD</a> কোডটি লিখলে TutorialBD এরকম আউটপুট হবে

Comments are closed.