যেভাবে আপনার মোবাইলের ক্যামেরা দিয়েই তুলবেন ভালো মানের ছবি!

আসসালামুয়ালাইকুম, বর্তমান সময়ে প্রায় সকলের হাতে হাতেই আছে ক্যামেরা মোবাইল। হোক তা চাইনিজ বা হোক কোয়ালিটির, ক্যামেরা মোবাইল বলে কথা। অনেকেরই ধারণা যে মোবাইলের ক্যামেরা দিয়ে ভালো ছবি তোলা সম্ভব না, কিন্তু আসলে ধারণাটি ভুল। ছবি তুলতে হলে যে শুধু ৮-১০ মেগাপিক্সেল ক্যমেরা লাগবে এই ধারণাটিও ভুল। মোটামুটি ৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরাই যথেষ্ট আমাদের প্রাত্যহিক ব্যবহারের জন্য, কারণ আমরাতো আর সাংবাদিক না! তবে যারা সাংবাদিক তাদের কথা আলাদা।
তবে যদি ৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা না থাকে মোবাইলে তবে ২ পেগাপিক্সেল দিয়েও ছবি খুব একটা খারাপ উঠে না। মুল কথায় আসি। ক্যামেরা যাই হোক, সাধারণ কিছু নিয়ম -কানুন মানলেই ভালো মানের ছবি তোলা সম্ভব।

নিয়মকানুনের যা আমার জানা আছে তাই নিচে শেয়ার করলাম।

2moqd80   ̴ı̴̴̡̡̡ ̡͌l̡̡̡ ̡͌l̡*̡̡ ̴̡ı̴̴̡ ̡̡͡|̲̲̲͡͡͡ ̲▫̲͡ ̲̲̲͡͡π̲̲͡͡ ̲̲͡▫̲̲͡͡ ̲|̡̡̡ ̡ ̴̡ı̴̡̡ ̡͌l̡̡̡̡.  যেভাবে আপনার মোবাইলের ক্যামেরা দিয়েই তুলবেন ভালো মানের ছবি  ̴ı̴̴̡̡̡ ̡͌l̡̡̡ ̡͌l̡*̡̡ ̴̡ı̴̴̡ ̡̡͡|̲̲̲͡͡͡ ̲▫̲͡ ̲̲̲͡͡π̲̲͡͡ ̲̲͡▫̲̲͡͡ ̲|̡̡̡ ̡ ̴̡ı̴̡̡ ̡͌l̡̡̡̡.  By DJ ΛЯIF | Techtunes

১.লাইটঃ

ছবির ক্ষেত্রে লাইটটাই বেশি দরকারি। ছবি তোলার সময় খেয়াল রাখতে হবে যাতে আলোর যথাযথ প্রভাব থাকে, মোবাইলে ভালো ফ্ল্যাশ থাকলে আর এ নিয়ে চিন্তা করতে হবে না। যদি ফ্ল্যাশ না থাকে তবে অবশ্যই আলোর দিকে বেশি খেয়াল করতে হবে। আলোটাই মুলতঃ ছবির প্রাণ। তাই বলে অন্ধকারের ছবি তুলতে গিয়েও কিন্তু আলো ব্যবহার করবেন না!!

২.জুমের ব্যবহারঃ

জুম যত কম ব্যবহার করা যায় ততই কম ব্যবহার করুন। জুম করলে ছবির কোয়ালিটি নষ্ট হতে পারে। বিশেষ করে যদি তা হয় ডিজিটাল জুম। যদি জুম করার প্রয়োজন হয় তবে কাছে গিয়ে ছবি তুলুন, আর যদি কাছে যাওয়া সম্ভবপর না হয় তবে জুম ছাড়া ছবি যেমন উঠে তাই ভাল। তবে যাদের অপটিকাল জুম আছে তাদের কথা আলাদা, অপটিকাল জুম যত এক্স পর্যন্ত আছে সর্বোচ্চ ততই ব্যবহার করুন, অবশ্যই খুব বেশি ব্যবহার না করাই ভাল। ডিজিটাল জুমে ছবি ফেটে যায় কিন্তু অপ্টিকাল জুমে ছবি ফাটে না। নিচের ছবিটি দেখুন-

iqdmkh   ̴ı̴̴̡̡̡ ̡͌l̡̡̡ ̡͌l̡*̡̡ ̴̡ı̴̴̡ ̡̡͡|̲̲̲͡͡͡ ̲▫̲͡ ̲̲̲͡͡π̲̲͡͡ ̲̲͡▫̲̲͡͡ ̲|̡̡̡ ̡ ̴̡ı̴̡̡ ̡͌l̡̡̡̡.  যেভাবে আপনার মোবাইলের ক্যামেরা দিয়েই তুলবেন ভালো মানের ছবি  ̴ı̴̴̡̡̡ ̡͌l̡̡̡ ̡͌l̡*̡̡ ̴̡ı̴̴̡ ̡̡͡|̲̲̲͡͡͡ ̲▫̲͡ ̲̲̲͡͡π̲̲͡͡ ̲̲͡▫̲̲͡͡ ̲|̡̡̡ ̡ ̴̡ı̴̡̡ ̡͌l̡̡̡̡.  By DJ ΛЯIF | Techtunes

৩.ক্যমেরা ভাল করে ধরাঃ

ছবি তোলার সময় অবশ্যই ক্যামেরাটিকে (বা ক্যামেরা মোবাইলটিকে) ভালো করে ধরতে হবে যাতে ছবি ব্লারি বা ঘোলা না অঠে, আর এজন্য মোবাইলকে নাড়াচাড়া করানো যাবেনা। ভালো করে ধরে ছবি তুলতে হবে। আর নিজের নড়াচড়ার দিকেও খেয়াল রাখতে হবে।

৪.ক্যামেরার লেন্সঃ

লেন্সের প্রতি যত্নবান হতে হবে। লেন্সে ঘোলা হয়ে গেলে ব্লারি বা ঘোলা ছবি ওঠা সাধারণ ব্যাপার। লেন্সকে সবসময় পাতলা শুকনো কাপড় বা পাতলা টিস্যু দিয়ে আস্তে করে মোছা উচিত, তাই বলে কেউ জোরে ঘসা দিবেন না, এতে লেন্স ভালো হঊয়া তো দূর নষ্টও হয়ে যেতে পারে। লেন্সে যাতে কখোনোই পানি না লাগে। ভালো লেন্স মোবাইলে ভালো ছবি তোলার ক্ষেত্রে পূর্বশর্ত। নিচে আমার ক্যামেরাটি দেখুন-

2qntjxg   ̴ı̴̴̡̡̡ ̡͌l̡̡̡ ̡͌l̡*̡̡ ̴̡ı̴̴̡ ̡̡͡|̲̲̲͡͡͡ ̲▫̲͡ ̲̲̲͡͡π̲̲͡͡ ̲̲͡▫̲̲͡͡ ̲|̡̡̡ ̡ ̴̡ı̴̡̡ ̡͌l̡̡̡̡.  যেভাবে আপনার মোবাইলের ক্যামেরা দিয়েই তুলবেন ভালো মানের ছবি  ̴ı̴̴̡̡̡ ̡͌l̡̡̡ ̡͌l̡*̡̡ ̴̡ı̴̴̡ ̡̡͡|̲̲̲͡͡͡ ̲▫̲͡ ̲̲̲͡͡π̲̲͡͡ ̲̲͡▫̲̲͡͡ ̲|̡̡̡ ̡ ̴̡ı̴̡̡ ̡͌l̡̡̡̡.  By DJ ΛЯIF | Techtunes

৫.লক্ষ্যবস্তুর কাছে যানঃ

জুম থাক বা না থাক ভালো ছবি তুলতে হলে যতটুকু পারা যায় লক্ষ্যবস্তুর নিকটে থাকুন, এতে ভালো কোয়ালিটির ছবি পাবেন। তাই বলে কেউ বিপদজনক কোন কিছুর ছবি তুলতে কাছে যাবে না!

৬.ছবিতে ইফেক্ট ব্যবহারঃ

প্রায় সব মোবাইলেই বিল্ট-ইন ইফেক্ট রয়েছে, তবে গ্রাফিক্স ডিজাইন যদি মোটামুটি জানেন তবে মোবাইলেরর বিল্ট ইন ইফেক্ট না দেয়াই ভালো। নরমাল ভাবে ছবি তুলে পরে সেটা কম্পিউটারে ইডিট করে নিলেই হবে।

৭.অভিজ্ঞ হয়ে উঠুনঃ

মোবাইল ক্যামেরা দিয়ে ছবি তুলতে যেহেতু খরচ হয় না{ মেমরি ছাড়া} তাই যত পারুন ছবি তুলুন, অবশ্যই সুন্দর মেয়ে দেখলে ছবি তোলার জন্য হাত চুল্কাবেন না, এতে সেদিনের জন্যে আপনার কপালে—————
বেশি বেশি ছবি তুলে নিজেকে অভিজ্ঞ বানিয়ে তুলুন। তবে যেভাবে মন চায় সেভাবে না, সকল নিয়ম মেনে ছবি তুলুন।

৮.রেজুলূশনঃ

অনেক মোবাইলেই আপনাকে রেজুলূশন চয়েজ করার সুবিধা দিয়ে থাকে। এক্ষেত্রে আপনাকে মোবাইলে থাকা সর্বোচ্চ রেজুলেশন ব্যবহার করাই ভালো। রেজুলেশন ভালো থাকলে ছবি ভালো হয় এবং হাই কোয়ালিটির হয়, বিশেষ করে যদি আপনি পরে ছবি প্রিন্ট করতে চান তাহলে ভালো রেজুলূশনের ছবি না হলে চলবে না। যদিও রেজুলূশনের ওপর ভিত্তি করে ছবির সাইজ বড় হয় তবুও রেজুলূশন বেশি দিয়ে ছবি তোলাই ভালো, সাইজের বা মেমরির চিন্তা করলে আর ভালো ছবি তোলা লাগবে না!!

৯.পিকচার ফ্রেম ব্যবহারঃ

মোবাইলে পিকচার ফ্রেম একটি সাধারণ ফিচার, প্রায় সব মোবাইলেই এই ফিচার আছে। কিন্তু মোবাইলের পিকচার ফ্রেম আপনার ছবির কোয়ালিটি ১০০% থেকে কমিয়ে ২০% এ নিয়ে আসবে, মানে আপনার ছবি পুরা ফাউল উঠবে! সুতরাং পিকচার ফ্রেম ব্যবহার বাদ দিতে হবে।

10fyuz5   ̴ı̴̴̡̡̡ ̡͌l̡̡̡ ̡͌l̡*̡̡ ̴̡ı̴̴̡ ̡̡͡|̲̲̲͡͡͡ ̲▫̲͡ ̲̲̲͡͡π̲̲͡͡ ̲̲͡▫̲̲͡͡ ̲|̡̡̡ ̡ ̴̡ı̴̡̡ ̡͌l̡̡̡̡.  যেভাবে আপনার মোবাইলের ক্যামেরা দিয়েই তুলবেন ভালো মানের ছবি  ̴ı̴̴̡̡̡ ̡͌l̡̡̡ ̡͌l̡*̡̡ ̴̡ı̴̴̡ ̡̡͡|̲̲̲͡͡͡ ̲▫̲͡ ̲̲̲͡͡π̲̲͡͡ ̲̲͡▫̲̲͡͡ ̲|̡̡̡ ̡ ̴̡ı̴̡̡ ̡͌l̡̡̡̡.  By DJ ΛЯIF | Techtunes

১০.ছবি তোলার বিষয় নির্বাচনঃ

বিষয় নির্বাচন ছবি তোলার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ। আপনার ছবি তোলার বিষয় বস্তু ভালো হতে হবে। নিজেই নিজের ছবি তোলা ভালো বিষয় বস্তু না। চেষ্টা করবেন প্রকৃ্তির ছবি তুলতে বা বৈচিত্রময় কিছুর ছবি তুলতে, এতে ছবি তোলার প্রতি আপনার আগ্রহ বাড়বে এবং একই সাথে ছবি তুলে মজাও পাবেন আপনি। নিজের ছবি যদি তুলতে চান তবে নিজে না তুলে অন্য কাউকে দিয়ে তোলান, যদি সম্ভব না হয় তবে সতর্কতার সাথে নিজেই তুলুন। কোন বিষয়ের শুধু একটি ছবি না তুলে একাধিক ছবি তুলুন, এতে ভালো শট পাবার সম্ভাবনা থাকে।

আমার মনে হয় উপরের বিষয়ে সতর্ক থাকলে মোবাইলেও ভালো ছবি তোলা কোন ব্যপারই না।
সকলের প্রতি সুভকামনা রইল, আশা করি মোবাইল ক্যামেরা দিয়েও ভালো ছবি তুলতে পারবেন।

আমার ইসলামিক ব্লগ, সকলে আমন্ত্রিত!

28 thoughts on “যেভাবে আপনার মোবাইলের ক্যামেরা দিয়েই তুলবেন ভালো মানের ছবি!”

  1. ভালো লাগলো, টিউটোরিয়াল টি অনেক কাজে লাগবে, লেখককে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

  2. শাহরিয়া

    আপনি তো দেখছি মোবাইল জাদুকর হয়ে গেছেন।

  3. নজরুল

    মোবাইলে উঠানো ছবি নিয়ে একঠি সাইট হলে কেমন হয় ?
    যেখানে সেরা ছবিগুলো পর্যায় ক্রমানুসারে থাকবে ।…….

  4. ভাল মানের ফটোগ্রাফার হওয়ার জন্য অবশ্যই এই নিয়ম গুলো অনুসরন করতে হবে। বিশেষ করে মোবাইলে এই নিয়ম অনুসরন করে ছবি তুললে ছবির মান অনেক ভাল হয়। আপনার এই পোষ্টটি আমার কাছে অনেক ভাল লেগেছে। ধন্যবাদ সুন্দর করে বর্ননা করার জন্য।

  5. Mohammad Faisal

    Dear Brother,
    It is nice reading your very simple and nice article. I am publishing an online newspaper named Copenhagen Bangla Barta from Denmark. I wonder, if I could publish your article in my newspaper or not. Please permit me to publish in my up coming newspaper. Also, requesting you to write something for my readers in Denmark. I can be reached by email at mohammad.faisal@banglabarta.dk or at mfaisalctg@yahoo.com. Thank you.

    Faisal

  6. Agei bole nei, eta amar opinion, r bangla phonetic keyboard a onek word lekha jacchilo na, tai ei pontha obolombon korlam.

    ek jon manush dariwala punjabi er dokan malik er kase punjabi kine keno r arekjon arong theke punjabi kine keno janen? karon prothom bekti hoyto beshi dhormanuragee, dityo bekti er kache hoyto, abar o bolchi, hoyto, ekjon dokan malik, jar Islam er proti agroho ache na nai, eta important na.

    ami jodi Islami blog porte jai, ba oorte agrohee hoi, tahole amon karo kach theke reference pete agrohi hobo jake ami IT ebong Islam, dui er shathei shomprikto bole jani. advice to free e hoy, taina vaia? tai apni kichu mone kore amar gunah briddhi koiren na, ekta advice dei, “DJ Arif” nam a likhe Islam related blog a visitor attract kora khub ekta valo idea na bolei mone hocche.

    @Tuto vai, ami apnar shathe ekmot, nije ke shudhriye niye kaj a namte agrohi ami. Inshallah, Allah amake oti shighroi ei taofiq diben. nahole ami Islami blog a lekha shuru kortam. ami professional blog/article writer. din a 2500-3000 word likhi onno der jonno, Islam niye likhte parle khub valo lagto.

    @DJ Arif vaia, English a islami blog chalu korle let me know, ami hoyto editing er kaj ta kore dite parbo. unfortunately, apnar lekhate, (Bangla te) grammatical mistake ache. je karon a bidhormee der blog/forum guli jonopriyo r beshi visit hoy, tar onnotomo boro karon holo ora shukhopattho content provide kore.
    Asha kori karo mon a aghat dei nai, amar sherokom kono iccha chilo na/nai. etake suggestion hishebe niye ogroshor hole valo hoy.
    Thank you all.

  7. বাংলারমানব

    কাজের একটা পোস্ট…
    আমি ও এভাবে ছবি তুলি ।

  8. তানিম

    অনেক সুন্দর লিখেছেন………… সত্যিই অনেক প্রসংশার দাবি রাখে……..

    1. @ইমরান, লেন্সে ঘোলা হয়ে গেলে ব্লারি বা ঘোলা ছবি ওঠা সাধারণ ব্যাপার। লেন্সকে সবসময় পাতলা শুকনো কাপড় বা পাতলা টিস্যু দিয়ে আস্তে করে মোছা উচিত, তাই বলে কেউ জোরে ঘসা দিবেন না, এতে লেন্স ভালো হঊয়া তো দূর নষ্টও হয়ে যেতে পারে। লেন্সে যাতে কখোনোই পানি না লাগে। ভালো লেন্স মোবাইলে ভালো ছবি তোলার ক্ষেত্রে পূর্বশর্ত। -DJ ARIF

      মনে থাকবে তো..? 😀

  9. প্রফেশনাল ফটোগ্রাফাররা সবসময় ভাল ক্যামেরার অনুসন্ধান করেন। মোবাইল ফটোগ্রাফী যেই হারে বৃদ্ধি পেয়েছে তাতে টিপসগুলো বেশ কার্যকর।
    ভাল ক্যামেরার তুলনায় ছোট মোবাইল ক্যামেরার সিমাবদ্ধতা মূলতঃ রেজুলেশন ও লাইটিং ও টাইমিং এ। দূরের কোন ছবি তুলতে মোবাইল ক্যামেরা দিয়ে জুম করে তুলতে গেলে অনেক খারাপ মানের ছবি আসতে পারে।

    মোবাইল দিয়ে অনকেই যে কারো ছবি তোলার বেপারে অবশ্যই ফটোগ্রাফারের অধিকারসমুহ জেনে নিতে পারেন।

    ছবি তোলার স্পিডটাও মাথায় রাখতে হয়। অনেক সময় ছবি তোলার বাটনে প্রেস করে সাথে সাথে ক্যামেরাটি বা লক্ষ্যবস্তুটি সরিয়ে নিলে ছবি ঝাপসা বা ব্লার হতে পারে। তাই ( ক্যামেরা অনুসারে) ছবি তোলার সময় ক্যামেরা ও লক্ষ্যবস্তুর স্থিরতা বজায় রাখা দরকার।

    ব্যাপক ভিত্তিক আলোচনার জন্য ডিজে আরিফ ভাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ ।

    1. @টিউটো,
      আপনার টিপস গুলোও প্রশংসার যোগ্য। ধন্যবাদ বিস্তারিতভাবে কমেন্ট করার জন্য। আর আমার নতুন ইসলামিক ব্লগ ঘুরে আসার জন্য ধন্যবাদ।

      1. ইসলামী ব্লগ পরিচালনা করতে আপনার কেমন লাগছে? আমার কাছে এটা অনেক কঠিন কাজ বলে মনে হয়। বাংলাভাষায় http://www.idbangla.com/forums/?forum এই ফোরামটি বেশ সুন্দর ইদানিং অবশ্য এটাতে ভিজিটর কম। একসময় বেশ আলোচনা হতো।
        ইসলাম সম্পর্কে অনেক কম জানি এবং তার চেয়ে আরও কম মেনে চলি, বাংলা ভাষায় ইসলামী ব্লগ পরিচালনা করার ইচ্ছা তবে তার আগে নিজেকে শুদ্ধ করার কাজে হাতে দিতে হবে। একটা বেপার – অনেক ইসলামে জ্ঞানী ব্যক্তিত্বও ব্লগ পরিচালনা করতে পারে না, তাদেরকে শিখিয়ে নিলে ইসলাম প্রচারে অগ্রনী ভূমিকা পালন করা যেতে পারে।

        1. @টিউটো,
          সত্য কথা বলতে আসলেই খুব কঠিন ইসলামিক ব্লগ চালানো, হোক তা বাংলা কিংবা ইংলিশ। তবে বাংলা হলেও সমস্যা প্রায় হতই না। কিন্তু ইংলিশ; উফ অসঝ্য। অনেক কষ্ট হচ্ছে লিখতে, বিশেষ করে টপিক নিরবাচনে, কখন কোন টপিক এর ওপর লিখবো তাই ঠিক করতে পারি না, পারলেও দেখা যায় যে সে বিষয়ে আমি যা জানি তা ইংরেজীতে মনের মত করে খোলাসাভাবে লিখতে পারছি না, যেহেতু ইংরেজী আমার প্রধান ভাষা না। তবে যারা এই (ইসলাম) বিষয়ে যানে তারা যদি ব্লগিং বিষয়টায় একটূ নজরপাত করতো তবে হয়তোবা আমাদের কিছুই করার প্রয়োজন ছিল না, কিন্তু যেহেতু তারা আগ্রহী না সেহেতু উপায়ান্তর না পেয়ে আমাদের হাল বাইতে হচ্ছে। এখনো আমি ভালো মানের কোন ইংরেজী ব্লগার (ইসলামিক) খুজে পাইনি। যেকজন কে পেয়েছি তারাও নিয়মিত না। মাসে মাত্র ২-৩ টা পোস্ট করে, সেক্ষেত্রে ইসলাম বিষয়ে সবার চাহিদা পূরণ সম্ভব না। গুগলে এই বিষয়ে ইমেজ খুজে দেখুন, মাথা ঘুরে যাবে!! বিধরমীরা যে আমাদের পিছে আদা-জল খেয়ে লেগেছে তার প্রতক্ষ্য প্রমাণ পাবেন। অগ্যতার কারণে অনেকেই তাদের মিথ্যা বানোয়াট কথাকেই সত্য হিসেবে মেনে নিয়ে ভুল পথে যাচ্ছে, মুসলমান আর ইসলাম কে ভুল বুঝছে। তাছাড়া কিছু হাই ক্লাস ইসলামিক সাইট আছে বটে তবে তাদের ইন্টারফেস সুন্দর না আর তা একজন পাঠককে ভালো ভাবে পড়ার সু্যোগও করে দিতে পারছে না। সবগুলো পেজই স্ট্যাটিক পেজ। অক্ষর আর ব্যাকগ্রাউন্ড কালারের অসামঞ্জস্য দেখে কারই হয়তো পড়তে আগ্রহ হয় না, যদিও তাদের কাছে হাই ক্লাস কন্টেন্ট আছে।

          উপরোক্ত নানা কারণেই আমার এই পথ বেছে নেয়া। অন্য বিষয়ে যা করি এদিকে একটু সময় দিতেই হচ্ছে। তবে কষ্ট হলেও আশানুরুপ ফল পেলে সব কষ্টই আনন্দে পরিণত হয়।

          এ বিষয়ে ব্লগিং এর আরেকটা ভালো জিনিস হল প্রতিটা ব্লগ পোস্ট করার পড় সাধারণ ব্লগ পোস্ট থেকে যেন একটু বেশিই প্রশান্তি মিল। তাই চালিয়ে যাবো। পারলে মাঝে মাঝে আপনিও লেখা দিয়ে আমাকে সাহায্য করিয়েন। http://islaminsidetheheart.com/submit-your-writing-here/
          এই লিঙ্কে লেখা পোস্ট করতে পারবেন।

          ধন্যবাদ।(বেশি বড় কমেন্টের জন্য সরী)

Comments are closed.