প্রোজেক্টের চেয়ে বেশি টাকা দাম হাঁকাবেন কেন এবং কখন?

অনেক দিন পরে ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ে লিখতে বসতে পেরেছি। ইদানিং আগের কয়েকজন লোকাল ক্লাইন্টদের নিয়মিত সার্ভিস দিয়ে যাচ্ছি যাদের প্রজেক্টের কাজ অনেক আগেই শেষ করে দিয়েছি। আজ সেই আভিজ্ঞতার আলোকেই কথাগুলো বলা, সবার জন্য প্রযোজ্য হয় কিনা জানি না। কোন একটি প্রোজেক্টের কাজে হাত দিলে প্রথমতঃ টাকার প্রশ্নটি আসে। প্রোজেক্টিতে কত টাকা নিবেন সেটা মূলতঃ সবাই প্রোজেক্টটির ব্যাবচ্ছেদের মাধ্যমে নির্ণয় করে জানিয়ে দেয়। কিন্তু প্রজেক্টের ব্যবহারিক দিক, রিডিজাইন করতে হবে কি না, কত দিন প্রোজেক্টি চলবে, ক্লাইন্টের সাথে সম্পর্ক ইত্যাদি অনেক অনেক বেপার নির্ভর করতে পারে।

2010-10-12_183319
অভিজ্ঞতাঃ

পাঁচ/’ছ মাস আগে পরিচিত একজনের সাইটের একটা সাদামাটা ডিজাইন করে দিলাম। মূলতঃ ১৭৬ ডলারের একটা ওয়ার্ডপ্রেস থিম কিনে কাষ্টমাইজ করে দিয়েছিলাম। সাইট ডিজাইনের সময় তার সাথে প্রতিদিন প্রায় ১০/১২ মিনিট ফোনে কথা বলতে হতো , রিকয়ারমেন্টগুলো মূলতঃ নিয়মিত পরিবর্তন হতো। পরিচিত বিধায় তার সাইটের বেপারে প্রতি সপ্তাহে কয়েক ঘন্টা আলাপ করা হয়। কথা বলার মূল বিষয় সাইটের সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন , ডিজাইন ও স্পিড। ইদানিং একটা বেপার আমায় ভাবিয়ে তুললো- তা হলো তার সাইটের জন্য যতটুকু কাজ করেছি এবং যত টাকা নিয়েছি তার চেয়ে আনেক বেশি সময় ও চিন্তা খরচ হয়ে গেছে তার সাথে নিয়মিত যোগাযোগে। সাইট ডিজাইনের সময় এত কিছু ভেবে কাজ করি নি, এখন সার্ভিস দেওয়ার বেপারটা একটা বিরক্তকর বেপার হয়ে দাড়িয়েছে।

কি কি কারনে বেশি চার্জ করা যেতে পারে?

১. সার্ভিসঃ

এ বেপারে কয়েকজনের সাথে আলাপ করে জানতে পারলাম যে, সাইট ডিজাইনের আগেই সার্ভিসের বেপারটা পরিষ্কার করে নিতে হবে। অনেকে মাসিক চার্জ করে, বড় কোন প্রোজেক্টের কাজ করলে ব্যাকআপ সহ বেশ কিছু কাজ করে দিতে হতে পারে সে জন্য মাসিক চার্জ নির্ধারন করে নিতে পারেন। বড় কয়েকটি প্রজেক্টে মাসিক চার্জ করতে পারলে নিজের ফ্রিল্যান্স কাজের ঝুকি অনেকটাই কমে যেতে পারে।

২. রি-ডিজাইনঃ

অনেকেই সাইটের রিডিজাইনে নতুন করে চার্জ দিতে বা কম চার্জ দিতে চেষ্টা করে। তাই এ বেপারটি আলোচনা করে নিতে পারেন বা সাইট ডিজাইনের ও টাকা পয়সার হিসেবের সময় বিষয়টি আলাপ করে নিতে পারেন।

৩. সার্ভার, ব্যাক আপ ও অন্যান্য বাড়তি কাজঃ

অনেক ক্লাইন্ট হোষ্টিং, ব্যাকআপ, কনটেন্ট, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন ইত্যাদি বেপারগুলো নিয়ে মোটেও কাজ করতে নারাজ বা অপারগ। তাদের ক্ষেত্রে ডিজাইন ও বাড়তি কাজ দুইটা মিলিয়ে টাকার হিসেবটা করা উচিৎ। একটা জিনিস মনে রাখতে হবে, কাজের ক্ষেত্রে সব সময় প্রোফেশনাল ভাব নিয়ে চলতে হবে। নিজের অবমূল্যায়ণ না করে, আবেগে না পড়ে, সময় ভাগ করে কাজ করা উচিৎ।

29 thoughts on “প্রোজেক্টের চেয়ে বেশি টাকা দাম হাঁকাবেন কেন এবং কখন?”

  1. Wow, incredible blog layout! How long have you been blogging for? you made blogging look easy. The overall look of your site is great, as well as the content!. Thanks For Your article about প্রোজেক্টের চেয়ে বেশি টাকা দাম হাঁকাবেন কেন এবং কখন? | টিউটোরিয়ালবিডি .

  2. vai a ame freelancer.com a data entry kaj ar jonno bit korcelam ar por bayer amake akta ms patai o akta user name and password dai bole ar vetor dok pdf file ene word awrite korte hobe.kento ame bujtase na je ame kaj paise ke na.r bayer kento bangladeshi.

  3. ঘুম থেকে ওঠার আগেই এক লোকের ফোন। তার সাইটের কিছু কাজ করেছিলাম অনেক দিন আগে। সে তার সাইটের গুগল বিজ্ঞাপনগোলোও এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় সরাতে পারে না, অথচ এডসেন্স ইনকাম খারাপ না। মার্কেটিং ভাল বোঝে। তার গুগল বিজ্ঞাপনগুলো পরিবর্তন করে এদিকে সেদিকে সরিয়ে দিতে হবে। আরো কিছু এক্সটারনাল কোড আছে সেগুলোকে বসিয়ে দিতে হবে। এমন কোন সপ্তাহ নাই যে তার দু’-একটা কাজ করছি না। প্রথম প্রথম বিরক্ত লাগতো না, অথচ এখন বেপারটা আসলেই বিরক্তকর হয়ে যাচ্ছে।

    প্রোজেক্টের চেয়ে আসলেই বেশি টাকা চাওয়া দরকার ছিল প্রথমে।

    1. ভাই ব্লগিং করে কোন বিষয় নিয়ে? আমার তো মনে হয় ওনার উদ্দেশ্য আপনাকে খাটানো।

      1. @শিবলী, বেপারটা আসলে তা নয়। সে কোডিং করতে পারে না। কিন্তু ব্লগিং করতে গেলে বিভিন্ন স্ক্রিপ্ট অনেক সময় ঢুকানো দরকার পরে। ডিরেক্টরী ও বিভিন্ন নেটওয়ার্কি এর কাজে সামান্য কিছু কাজ না জানার কারনেই ….

          1. @শিবলী,সমস্যা হলো দুইজন তো কাছাকাছি না। সে থাকে ঢাকায়, আমি চট্টগ্রাম। তাকে চট্টগাম আসতে বলবো … ওয়ার্ডপ্রেস ডেভলপমেন্ট না শিখিয়ে উপায় নাই। 😛

    2. @মাহবুব টিউটো,
      তাহলে আরও খাটাত।
      আমি সরাসরি বলে দেই ৭ দিন পর টাকা ছাড়া কিছুই করব না 😀
      একটা ছোট উদাহরনঃ
      Let’s talk shortcut I don’t like to talk much.

      I will do:
      A simple design.
      A site with joomla.
      User can sing up and post article. You can moderation them.
      Anyone can comment with valid name and Email address.

      I will not do:
      redesign for free.
      Any more work after 7 days I finished the project.
      NO SEO.

        1. @মাহবুব টিউটো,
          ফ্রি কাজের ব্যাপারটা আলাদা। সে টাকা দিয়ে কাজ করাবে তাই কি আমাকে কিনে নেবে? আমি কি করব কি করব না স্পস্ট করে বলে দেই। পরে ভুল বোঝা বুঝির সম্ভাবনা প্রায় থাকেই না। কঠিন কঠিন কথা গুলো পরিচিত জনদেরও আবার মনে করিয়ে দিয়ে কাজ করি।

          1. @ইমরান, কাগজে কলমে কোন ডকুমেন্ট তৈরী করে তারপর কাজ করেন নাকি? অনেকে তো (অফলাইন কাজের ক্ষেত্রে) ওয়ার্ক অর্ডারসহ বেশ কিছু প্রসিডিওর মেইনটেইন করে।

            1. @মাহবুব টিউটো,
              অফলাইনে কাজের ক্ষেত্রে ঠিক কাগজে কলমে না PDF ফাইলে চুক্তি নামা করে এক কপি তাকে দিয়ে দেই। আমার হিডেন সিগনেচার থাকে তাই এডিট করলে ধরা পড়বেই। আর অনলাইনে কাজের ক্ষেত্রে সার্ভারে সংরক্ষিত থাকে।তবে কোন ফ্রিল্যান্সিং সাইটের মাধ্যমে করলে এত ঝামেলায় যাইনা।

              1. @ইমরান, একটা সমাধান পইলাম। একটা চুক্তিনামা বানানো উচিৎ ছিল। এখন থেকে তাই করবো। কিন্তু এই সব অফিসিয়াল ঝামেলা করতে একদম ভাল লাগে না।

                  1. @ইমরান, আমি তো এমএস ওয়ার্ডে লিখে সাটাকে পিডিএফ কনভার্টার দিয়ে কনভার্ট করে নেই। ভালই কাজ করে। বিশেষ করে অনেক পাতার পিডিএফগুলো সুন্দর আসে।

  4. @শিবলী,
    hummmmmm আমি সময়ের অভাবে কত কাজ পারি না! আমার ভাগ্নে কাল বড় মাইন্ড করল! পরে ওর কাজটা করতে গিয়ে জুমলা টিউটোরিয়ালটা লিখা হলোনা।
    ওর জন্য করা কাজটা দেখুন এখানে (যদি মঞ্চায় )

      1. @শিবলী,
        এই যুগে এই কথা কেউ জিজ্ঞেস করে? who is টুল গুলো তাহলে ভাতে মারা যাবে! 😀
        হোস্ট করেছি 000a.biz এর ফ্রি সার্ভারে। এটা অনেক (৬০%) পেইড হোস্টিং এর চেয়ে ভাল।

          1. @শিবলী,
            ফাইল সাইজ আর টার্ম গুলো একটু কঠিন। সে ব্যাপারে খেয়াল রাখবেন। আর এরা ভিস্তা প্যানেল দিচ্ছে। শেষ দেখেছি এই সার্ভারে ৬০০ মত সাইট আছে। এদের স্পন্সর হচ্ছে Ipage।

    1. @ইমরান, গেম রিভিউর জন্য সাইটটা তো সুন্দর হয়েছে। ব্যাগ্রাউন্ড ছবির স্লাইড শো ভালই হইছে। ফ্রিল্যান্সিং এ আপনার অভিজ্ঞতাগুলোও দিয়েও লিখতে পারেন একটা পোষ্ট।

  5. বেশি হেকেও শেষে মাফ চাওয়ার অভিজ্ঞতা আছে………
    আসলে ভাল করে বুঝে কাজটা নেওয়া উচিত ছিল। প্রায় ২ মাস কষ্ট করলাম ফাও।
    আর এটা চরম সত্য যে নতুনরা কাজ পায়না শুধু ফাও পেচাল ফাও অফার ইত্যাদির কারনে।
    শুরুতেই তারা ১০০০ ডলারের কাজ চায়! আমি বলি ১০ টা ১০ ডলার আর একটা ১০০ ডলারের নোট সমান।
    কিন্তু ফিডব্যাক ১০টা আর তাদের চাহিদাও সমসাময়িক ৭ দিন পর আপনাকে কোন কারনে ডাকবেনা।

Comments are closed.