পিএইচপি শিখতে আগ্রহীদের জন্য অসাধারণ ইবুক; নতুনসহ মোটামুটি অভিজ্ঞদেরও কাজে আসবে!

স্বাগতম আমার আজকের টিউটোরিয়ালে। তবে আজকের লেখাটিকে মূলতঃ টিউটোরিয়াল বলা সঠিক হবে না। আজ আমি মূলতঃ একটি বইয়ের রিভিউসহ ডাউনলোড লিঙ্ক দিব। তো শুরু করি।

যেহেতু আপনি এই পোস্টটি পড়তে আগ্রহ দেখিয়েছেন সেহেতু ধরে নিচ্ছি আপনি পিএইচপি শিখতে ইচ্ছুক বা শিখছেন অথবা এ সম্বন্ধে যথেষ্ট জ্ঞান থাকা সত্ত্বেও নিজেকে ঝাঝিয়ে নিতে চাচ্ছেন। আশা করি পিএইচপি সম্বন্ধে অনেকেই মোটামুটি ধারণা রাখেন। তবে যদি এ সম্বন্ধে যথেষ্ট ধারণা না থাকে তবে গুগলে “পিএইচপি site:tutorialbd.com” লিখে খুজে দেখুন আশা করি যথেষ্ট তথ্য পাবেন। তাই আমি আর বিস্তারিত না লিখে সরাসরি বইটির সংক্ষিপ্ত রিভিউসহ ডাউনলোড লিঙ্ক প্রকাশ করলাম।

Beginning PHP and MySQL:

From Novice to Professional(4th Edition)

পিএইচপির জন্য দরকারী ইবুক
রিভিউঃ

বইটি মূলতঃ সর্বোস্তরের পিএইচপি প্রোগ্রামারদের জন্য লেখা। বইটিতে অধ্যায় ভিত্তিকভাবে প্রতিটি অংশ সুন্দর ভাবে তুলে ধরা হয়েছে। বইটির লেখক হলেন ডব্লিউ.জেসন গিলমোর। এ পর্যন্ত বইটি চারবার আপডেট করা হয়েছে। তবে শেষের আপডেটটিই পরিপূর্ণ। পিএইচপি ৫.৩ এর সকল ফিচারসহ নেমস্পেসিং, AMP স্টক ইন্সটলেশন এবং কনফিগারেশন, যেন্ড ফ্রেমোওয়ার্কের আপডেট, মাইএস্কিউএল ওয়ার্কবেঞ্চসহ আরো অনেক কিছু বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

বইটি আপনাকে পিএইচপি এর সাথে হাতে খড়ি করিয়ে দেবে এবং পাশাপাশি কিভাবে এর মাধ্যমে ডাটা ড্রাইভেন অ্যাপ্লিকেশন তৈরী করা যায় সে বিষয়েও যথেষ্ট ধারণা দেবে। গিলমোরের ৭ বছরের অভিজ্ঞতা রয়েছে এ বিষয়ে। যারা পিএইচপি শিখতে আগ্রহী বিশেষ করে যারা শিবলীর মত এ বিষয়ে ব্লগিং থেকে বেশি আগ্রহ প্রকাশ করেন তারা এ বইটি অবশ্যই ডাউনলোড করে দেখবেন।

আর বিস্তারিত লেখার প্রয়োজন মনে করছিনা। আসলে বইটির সঠিক ব্যবহার করে নিজেকে ঝাঝিয়ে তুলবেন

বইটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

15 thoughts on “পিএইচপি শিখতে আগ্রহীদের জন্য অসাধারণ ইবুক; নতুনসহ মোটামুটি অভিজ্ঞদেরও কাজে আসবে!”

  1. তাল পাতার সিপাহি

    ভাই যদি একটু কষ্ট করে লিংকটি ঠিক করে দিতেন কারন বই টি আমার দরকার অনেক

  2. tutorial book er link broken…plz new link update korun…thank…..ami ei site a new …..php sikhte chai,

  3. ভাই আপনার ডাউনলোড লিংকে বইটি নাই…

  4. ধন্যবাদ মাহবুব ভাই, পোস্টটিকে ইডিট করে দেয়ার জন্য।
    পোস্টটি কয়েকদিন পরে ডিলিট করে দিয়েন কারণ লেখা একদম জঘন্য হয়েছে।

      1. @শিবলী,
        আচ্ছা শিবলী এক কাজ করা যেতে পারে, আমি তোমাকে পিএইচপির বইগুলোর লিঙ্ক ফেসবুকে দিয়ে দেই তুমি ডাউনলোড করে দেখো কেমন লাগে। ফালতু রিভিউ লেখার চেয়ে না লেখাই ভালো।

        1. @ডিজে আরিফ,
          ও মাহবুব ভাই, একটা রিকোয়েস্ট, সত্য বলতে এই সাইটে কিন্তু প্রয়োজনীয় কন্টেন্ট এর কমতি নেই, কিন্তু যা লক্ষ্য করছি তুলনামূলক ভিজিটর কম, এবং খুব কম মানুষই পোস্ট করে, এক্ষেত্রে একটু এগ্রেসিভ হয়ে সাইটটির প্রচারণা চালালে আশা করি ভালো ভিজিটর পাওয়া সম্ভব।

          পাশাপাশি আপনাকে মান্থলি ট্রাফিক রিপোর্ট প্রকাশে রিকোয়েস্ট করছি, আশা করি আপনি রাজি হবেন।

          1. @ডিজে আরিফ, এটা ঠিক যে, এখন বেশ ভাল ভাল কনটেন্ট হয়েছে টিউটোরিয়ালবিডিতে। পাঠকও মুটামুটি ভালই, তবে ভাল কনটেন্ট লেখার মতো ভাল লেখকের বেশ অভাব বোধ করছি। আশা করি আগামী তিন মাস অনেক বেশি ভিজিটর পাবো। ভিজিটরের বেপারে পোষ্ট দেওয়া কি বেশি জরুরী কিনা বুঝতে পারছি না। যে কোন ব্যক্তি সহজেই আলেক্সা র‌্যাংক দেখে বুঝতে পারে সাইটে কেমন ট্রাফিক। আমার মনে হয় ফেসবুকে পোষ্টগুলো বেশি বেশি শেয়ার ও লাইক করলে আরও বেশি ভিজিটর পাওয়া যেতো। তাই আশা করবো সবাই যাতে এ বেপারে সহায়তা করে।

            1. @মাহবুব টিউটো,
              তা অবশ্য পাওয়া যেত। তবে বেশির ভাগ সক্রিয় ফেসবুক ব্যবহারকারীই বিভিন্ন সাইটে যায় শুধু আগ্রহে, এর পর সাইটে যতভালো কন্টেন্টই থাকুক না কেন তাদের বেশির ভাগই থাকে এতোটাই অজ্ঞ যে মূল্যবান লেখার কোন মূল্যই বোঝে না তারা (আমি সবার কথা বলছিনা)। তারা আসে আর যায়, আর এদিক দিয়ে অ্যালেক্সা র‌্যাংক-এ সাইটের র‌্যাংক কমে যায়, কারণ এ সকল ফালতু ফেসবুক ভিজিটর আসা যাওয়ার মাধ্যমে সাইটের বাউন্স রেট বাড়িয়ে দেয়। বাউন্স রেট বেড়ে যাওয়া সারচ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশনেও ব্যাপক প্রভাব ফেলে, বাউন্স রেট বেড়ে গেলে সারচ ইঞ্জিন আপনার সাইটকে কম মূল্য দিবে যাতে করে আপনি আপনার উচ্চমানের কন্টেন্ট থাকা সত্তেও আপনার কাংখিত র‌্যাংক হারাবেন।

              তবে এদিক দিয়ে আমি যতটুকু আজ পরযন্ত লক্ষ্য করেছি তা হল ডিগ, স্টাম্বল আপন আর টুইটার ব্যবহারকারীরা বেশি সচেতন, তারা আপনার কন্টেন্টের মূল্য দিবে। তাই সাইটের পোস্টগুলোকে রিটুইট করার ব্যবস্থা করার জন্য রিকোয়েস্ট করছি।

              আর আপনি এ বিষয়ে নিশ্চিন্ত থাকবেন যে আমরা আপনার সহায়তায় অবশ্যই এগিয়ে আসবে, যেকোন সাহাযে তলব করবেন।

              আর ট্রাফিক রিপোরট প্রকাশ করলে আপনার পাঠক সচেতন হবে তারা আপনাকে অনূসরণ করতে চেষ্টা করবে, আর আপনি অবশ্যই বিভিন্ন ভালো ওয়েবসাইটের লেখককে আপনার সাইটে গেস্ট হিসেবে লেখার আমন্ত্রণ জানাতে পারেন। নামিদামি প্রায় সবগুলো ব্লগেরই ট্রাফিকের মূল মন্ত্র হল গেস্ট ব্লগিং।

              যেকোনো সাহায্য লাগলে বলবেন।

              1. @ডিজে আরিফ, সামাজিক নেটওয়ার্কে সবাইকে জানাননোর জন্য সবার সহযোগিতা দরকার। একজনের পরিচয়ের মাধ্যমে অনেককে এখানে আনা সম্ভব হবে না। ভাল কোন পোষ্ট পড়ে উপকারিতা পেলে পাঠকদের উচিৎ সেই পোষ্ট সবার মাঝে শেয়ার করা। এটা সাইটের জন্য বিশাল মার্কেটিং হতে পারে।
                টুইটারে বাংলাদেশী কম লোক দেখি। তবে সেটার দিকে সচেতন হওয়ার চেষ্টা করবো। ধন্যবাদ সুন্দর মতামত দেওয়ার জন্য।

                1. @মাহবুব টিউটো,
                  হ্যা এটা ঠিক যে টুইটারে বাংলাদেশী মানুষ তুলনামূলক কম, তবে সেখানে বাংলাতে কথা বলে এমন মানুষের সঙ্খ্যা কিন্তু কম নয়, সেখানে কলকাতাসহ বিভিন্ন প্রদেশের লোক যাদের প্রধান ভাষা বাংলা তারা রয়েছে, আর বাংলাদেশীদের জন্য এটা প্লাস পয়েন্ট যে এতো তথ্যবহুলতো দূরে থাক বাংলাদেশী ব্লগগুলোর(বাংলা) ধারে কাছেও নেই অন্য কোন প্রদেশ (যেমন-কলকাতা)। তাই তাদের কাছ থেকেও আমরা ট্রাফিক পেতে পারি।
                  আর মাহবুব ভাই আপনিমকিছু লোকাল এড নেয়ার চেষ্টা করতে পারেন, এতে সামান্য হাত খরচ হলেও আসতে পারে আপনার, আর এতে আশা করি আমাদের কেউই দ্বিমত পোষণ করবে না।

                  1. @ডিজে আরিফ, আমি এখনো বুঝতে পারছি না কেন যে কলকাতা সহ ভারতে বাংলা সাইটগুলোর তেমন জনপ্রিয়তা নেই। বাংলাভাষাভাষীর তুলনায় তাদের হিট সংখ্যা অনেক কম।
                    বিজ্ঞাপন থেকে বেশি পরিমান টাকা না পাওয়া পর্যন্ত সাইটে বিজ্ঞাপন নিতে আগ্রহ প্রকাশ করছি না। যখন বিজ্ঞাপন থেকে একটা ছোট পরিসরের অফিস চালানো যাবে তখনই নেব ভাবছি।

Comments are closed.