কর্মক্ষেত্র পরিবর্তনের চিন্তা করছেন ?

আমি অনেককেই দেখেছি তারা তাদের কর্ম ক্ষেত্র নিয়ে সন্তুষ্ট না । অনেকে কর্ম ক্ষেত্র নিয়ে সন্তুষ্ট হলেও বেতন ও অন্যন্য সুবিধা নিয়ে অসন্তুষ্ট। কর্ম ক্ষেত্র পরিবর্তনের উপর অনেকের আগ্রহ থাকা সত্ত্বেও এগিয়ে যেতে নানান ধরনের বাধার সম্মুক্ষিন হয়। আবার নতুন কর্ম ক্ষেত্রে এগিয়ে যাওয়ার ভয়ও অনেকেকে পরিবর্থনের সুযোগ দেয় না। কর্ম ক্ষেত্র পরবির্তনের জন্য বেশ কিছু বিষয় ভেবে নিতে হয়।

কর্মক্ষেত্র পরিবর্তনের চিন্তা করছেন ?

এগিয়ে যাওয়ার পথ ও ভাবনাঃ

এগিয়ে যাওয়ার জন্য অবশ্যই নিজের গুরুত্ব দিতে হবে। এমন অনেক বিষয় আছে আপনি সেই বিষয়ে আগ্রহি না, এমন বিষয় বিষয় আছে যেখানে আপনার ভাল কারর সম্ভাবনা নাই। নতুন চাকরীর সন্ধানে নামলে অবশ্যই সেই সব বিষয়গুলো ভেবে এগিয়ে যাবেনঃ
১. আপনি কি পছন্দ করেন? কান ধরনের কাজ আপনার পছন্দ? আর নিজেকে কোন কাজে বেশ মানানসই বলে মনে করেন?
২. কোন কোন বিষয়ে আপনি দক্ষ? কোন কাজে অন্যের চেয়ে আপনি দক্ষ? অভিজ্ঞতা বা অন্যান্য দিক থেকে আপনাকে কোন কোন কাজে কেউ লুজার বলতে পারবে না?
৩. কি কি বিষয়ে আপনার আগ্রহ আছে? কি হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলতে চান? কতটা পরিশ্রম বা ত্যাগ স্বীকার করতে পারবেন নতুন বিষয়টি শিখতে?

এই সব ভেবে ও নিজের অবস্থান জেনে নতুন তোন চাকরীর দিকে হাত বাড়াতে পারেন।

নিজের পরীক্ষা নেওয়া

ধরা যাক আপনি ওয়েব ডিজাইনার হিসেবে নিজের ক্যারিয়ারের কথা ভাবছেন। ধরা যাক আপনি বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানে ওয়েব ডিজাইনার হিসেবে চাকরীর আবেদন করেছেন। এখন নিজে নিজে কিছু প্রোজেক্টে কাজ শুরু করে দিতে পারেন। ৪/৫ টা প্রোজেক্ট বানিয়ে সেখানে এগিয়ে কাজ করে নিজের অবস্থান সহজেই বুঝতে পারবেন। হাতে কলমে কাজ করলে চাকরীর ইন্টারভিউতে কিভাবে নিজেকে উপস্থাপন করবেন? সেখানে কি কি প্রশ্ন ও উত্তরের সম্মুক্ষিন হতে হবে এ বেপারে আগে থেকেই বুঝে নিতে সুবিধা হবে।
নিজের দক্ষতার অবস্থান জানা
বড় পরিবেশে কাজ করতে গেলে বেশ কিছু বিষয়ে দক্ষতা নিজের ভেতরে নিয়ে আসতে হয়। এখন আপনি নিজের বেপারে দেখে নিনঃ

  • ক. পরিচালনার যোগ্যতা
  • খ. নেতৃত্ব দেওয়ার যোগ্যতা
  • গ. লেখা-লেখির ও কথা বলার দক্ষতা
  • ঘ. রিসার্চ করার দক্ষতা
  • ঙ. পরিকল্পনা করার ক্ষমতা
  • চ. দূরদর্শীতা
  • ছ. কম্পিউটার দক্ষতা
  • জ. বিদেশি/ ইংরেজী ভাষার দক্ষতা

অন্যান্যরা কিভাবে এগিয়ে গিয়েছে?

আপনার পরিচিত অনেকেই হয়তো ভাল কোন কাজের সাথে যুক্ত আছে। তারা কিভাবে এগিয়ে গিয়েছে সেটা দেখে নিন। এবং তাদের থেকেও জেনে নিতে পারেন কিভাবে তারা ভাল ক্যারিয়ারের দিকে গিয়েছে।

  • অন্যরা কিভাবে তাদের চাকরীতে আছেন?
  • সেই চাকরীতে কি তারা সন্তুষ্ট?
  • তাদের পরিবার ও চাকরীতে তাদের ও আপনার জীবনযাবনের পরিবর্তন কেমন?
  • এই পথে যাওয়ার ক্ষেত্রে কোন কোন বিষয় তাদের এগিয়ে নিয়েছে?

অন্যের কাছ থেকে সাজেশন নিনঃ

বর্তমান কাজকে অনেক সময় বোরিং মনে হতে পারে। আবার নতুন চাকরীটা যে সুখের হবে তাও বলা যায় না। তাই নতুন কোন চাকরী কনফার্ম হলে এই বেপারে আণ্যের মতামত নিতে পারেন। সবচেয়ে বড় কথা নিজের আগ্রহের বাইরের বিষয়ে কাজ না করাই ভাল। অনেক ক্ষেত্রে কর্ম পরিবশও একটা গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে হতে পারে। তাই অবশ্যই নতুন কর্ম পরিবেশে এগিয়ে যাওয়ার জন্য অনকের সাথে মত বিনিময় করে নিতে পারেন।

উপসংহারঃ

একটি ভাল চাকরী পাওয়া আজকাল একটি স্বপ্ন। একটি ভাল কাজে জিরত থাকলে পরিবার ও সামাজের জন্য গর্ব। আর তাই নিজের যোগ্যতা ও সততাকে সবসময় এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা উচিৎ। আশা করা যায় আপনিও ভাল একটি কাজের সন্ধান পাবেন।

3 thoughts on “কর্মক্ষেত্র পরিবর্তনের চিন্তা করছেন ?”

  1. Wow, superb blog layout! How long have you been blogging for? you make blogging look easy. The overall look of your website is wonderful, let alone the content!. Thanks For Your article about কর্মক্ষেত্র পরিবর্তনের চিন্তা করছেন ? | টিউটোরিয়ালবিডি .

  2. আপনার এই পরামর্শ গুলো আমি খুব যত্ন করে ভবিষ্যতের জন্য জমিয়ে রাখি! কত নীল আর সবুজ স্বপ্ন যে এই মনে!

Comments are closed.