আইপ্যাড ঘরনার ওয়েব ডিজাইনের কিছু টিপস!

বলা চলে এ্যাপেল তাদের সূচনালগ্ন থেকে প্রযুক্তি বিশ্বকে প্রায় দুভাগ করে রেখেছে তাদের নান্দনিক সব পণ্য আর বাহারি ডিজাইন এর চমক দিয়ে। কিন্তু প্রযুক্তি বিশ্ব এর অনেকেই এথা মানতে নারাজ স্বভাবতই প্রতিযোগীতার কারনে। আবার আসব প্রতিযোগীতার মাঝেও যারা ওয়েবমাস্টার তাদের মাথা ব্যাথা ছিল কিভাবে তারা আইপ্যাড এর জন্য ওয়েব সাইট নির্মান করবে। সাথে চিন্তার বিষয় ছিল আসলেই এ্যাপেল এতো কিছুর ভিড়ে টিকে থাকতে পারবে কিনা।

সময়ের সাথে সাথে এ্যাপেল তাদের বাজার পেতে শুরু করে এবং ওয়েব মাস্টাররা শুরু করে তাদের আইপ্যাড সাইট করার চিন্তা। দেখা যায় বেশির ভাগ সাইট নির্মাতারা আইপ্যাড নিয়ে তাদের মাথা ব্যথা কটিয়ে উঠতে পারেন নাই। আসলেই ব্যাপার গুলো কঠিন কিছু না হলেও নিতান্ত-ই অবহেলা বসতঃ হয়ত তারা কাটিয়ে উঠতে পারে না। ব্যাপার গুলো কি একটু নজর বুলাই…

১. আইপ্যাড সম্পর্কে ধারনাঃ

আমাদের দেখা সচারচর ওয়েব সাইটগুলো থেকে আইপ্যাড এর জন্য নির্মিত সাইট গুলোর আলাদা বৈশাদৃস্যতা দেখা যায়। ডিজাইনগুলো হয়ে থাকে সাদামাটা কিন্তু সাধারন থেকে অনেক কিছু। বলা চলে আউটলুক সাধারন রেখে আপনি কত সৃজনশীলতা আনতে পারেন। উদাহরন হিসেবে নিতে পারেন এ্যাপেল এর সাইটটিকেই। তবে এক্ষেত্রে বলে রাখা ভাল যেসকল ওয়েব মাস্টাররা আইপ্যাড ব্যবহার করেন বা করেছেন। আমি বলছি না যে আপনি আইপ্যাড ব্যবহার না করলে সেই ঘরনার সাইট করতে পারবেন না, ব্যাপারটি এমন কোনো কিছু নিয়ে কাজ করার আগে একবার সেটা নিয়ে রিসার্চ করা ভাল। এতে কাজটি করতে যেমন সুবিধা পাবেন পাশাপাশি সেই পন্য ব্যবহার সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করতে পারবেন।

২. ফ্ল্যাশ এবং জাভা’র ব্যবহার না করাঃ

আইপ্যাড সাইট ডিজাইনের ক্ষেত্রে ফ্ল্যাশ এবং জাভা’র ব্যবহার না করাই উত্তম। কারন, আইপ্যাড সাইট যে ঘরনার প্লাটফর্ম ব্যবহার করে তৈরী করা হয় সেটা সাধারনতো সাফারী ব্রাউজার সমর্থন করে না। কারন ফ্ল্যাশ এবং জাভা বেশির ভাগ ব্রাউজারে প্লাগিন্স ব্যবহার করে সাইট প্রদর্শন করায় আর সাফারী এসব প্লাগিংস সমর্থন করে না। এক্ষেত্রে আপনি যদি এইচটিএমএল ৫ এবং সিএসএস ৩ দিয়ে আইপ্যাড সাইট করতে পারবেন। কারন আপনি ফ্ল্যাশ এবং জাভা ব্যবহার করে যে এনিমেশন করবেব তার চেয়ে কয়েকগুন বেশি আকর্ষনীয় এবং দ্রুতগতির যেকোনো সাইট তৈরী করে ফেলতে পারবেন। যদি এইচটিএমএল ৫ এবং সিএসএস ৩-তে অজ্ঞ হয়ে থাকেন তাহলে শিক্ষা শুরু করতে পারেন আজ-ই ডব্লিউথ্রীস্কুল.কম

আশা করি বুঝতে পেরেছেন?

আজ এই পর্যন্তই!

সবাই ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন! 🙂