ডোমেইন ও হোস্টিং ব্যবসাঃ পর্ব-এক

ওয়েব হোস্টিং কেনা বেচার জন্য বাংলাদেশে দু-একটা বড় প্রতিষ্ঠান অনেক আগে থেকেই সার্ভিস দিয়ে যাচ্ছে। তবে আইটি মেধার বিকাশের ধারাবাহিকতায় অনেক ছোট প্রতিষ্ঠান পর্যায়েও ডোমেইন হোস্টিং ব্যবসা শুরু করছে এবং আমার জানা অনেক ছোট প্রতিষ্ঠানও অনেক ভাল সার্ভিস ও সাপোর্ট দিয়ে যাচ্ছে। আমি এখানে ধারাবাহিক ভাবে ডোমেইন হোস্টিং ব্যবসা শুরু করার কলা কৌশল আলোচনা করবো।

হোস্টিং ব্যবসা লাভজনক কেন?

ধরুন আপনার একটি কম্পিউটার আছে এবং এটিতে ৫০০ গিগাবাইট হার্ডডিস্ক আছে। আপনি অনেক জায়গাই ফেলে রাখছেন এটি অন্য কাউকে ব্যবহার করতে দিলে আপনার কোন সমস্যা নাই। যদি আপনার কোন বন্ধুর কম্পিউটারের ডিস্ক কম থাকে আর আপনার ডিস্কে কিছু তথ্য রেখে নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ব্যবহার করতে চায় তাহলে আপনার তেমন বাড়তি খরচ হবে না।
একই ভাবে ওয়েব ডিস্ক ও রিসোর্সগুলোও বিভিন্ন ক্লাইন্টদের মধ্য বিতরন হয়। আর এটি বিতরনের সময় কিছু বাড়তি চার্জ নিলে আপনি ও আপনার ক্লাইন্ট উভয়ই লাভবান হতে পারে। ধরা যাক আপনার একটি ওয়েবসাইটের জন্য ৫০ গাগাবাইট ওয়েব স্পেস কিনলেন এবং ব্যহৃত হলো ২০ গিগাবাইট বাকি ৩০ গিগাবাইট বিক্রি করে দিতে পারেন। আর এতে আপনার বাড়তি খরচ হলো না, বরং কিছু টাকা আয় হলো।

একটি ডেডিকেটেড সারভারকে প্রয়োজন অনুসারে ভাগ ভাগ করে বিক্রি করা হলে ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়েরই লাভ হতে পারে। কারন ক্রেতার পক্ষে বড় একটি সারভার কেনার টাকা ও প্রয়োজন নেই। আর বিক্রেতা তার ক্রেতার চাহিদার ভিত্তিতে প্যাকেজ তৈরী করে কিছু টাকা লাভসহ বিক্রি করতে পারলো।

হোস্টিং ব্যবসা শুরু করার ক্ষেত্রে কি কি বিষয় জানতে হবে?

আপনারকে ওয়েব হোস্টিং ব্যবসা শুরু করতে প্রথমতঃ সারভার পরিচালনার বেশ কিছু বিষয় জানতে হবে। আপনি যদি ডেডিকেটেড বা ভিপিএস সারভার দিয়ে ব্যবসা শুরু করেন তাহলে একটু বেশি কিছুই জানতে হবে। তবে রিসেলার হোস্টিং নিয়ে ব্যবসা শুরু করলে সি-প্যানেল এবং ওয়েবহোস্ট ম্যানেজার সম্পর্কে ধারনা থাকলেই চলবে। তবে অনেক ওয়েব হোস্টিং প্রতিষ্ঠান ম্যানেজড ভিপিএস বিক্রি করে যারা অনেক কিছুই করে দিবে।

উল্লেখ্য টিউটোহোস্ট থেকে হোস্টিং নিয়ে ব্যবসা শুরু করলে ক্লাইন্ট লেভেল পর্যন্ত সাপোর্ট টিউটোহোস্ট দিয়ে থাকে।

শুরু করতে সর্ব নিন্ম কত টাকা প্রয়োজন হবে?

বিভিন্ন ধরনের রিসেলার আছে। তবে সর্ব নিন্ম ৫০০০ টাকা দিয়ে একটি রিসেলার হোস্টিং কিনেই শুরু করতে পারেন আপনার ওয়েব হোস্টিং ব্যবসা। টিউটোহোস্টের রিসেলার-১ প্যাকেজটিতে ৫ গাগাবাইট জায়গা সহ রিসেলার হোস্টিং বিক্রি করে থাকে।

তাছাড়া বিভিন্ন ওয়েব হোস্টিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠার বিভিন্ন দামের রিসেলার হোস্টিং বিক্রি করে থাকে। যে কোন একটি রিসেলার দিয়ে প্রাথমিক ভাবে শুরু করতে পারেন। যদি একটু বড় মাপের ব্যবসা শুরু করতে চান যাতে আপনি রিসেলারও বিক্রি করবেন তার জন্য আপনারকে মাস্টার রিসেলার, ভিপিএস বা ডেডিকেটেড হোস্টিং নিতে হবে।

ভিপিএস বা ডেডিকেটেড সারভারের ক্ষেত্রে সি-প্যানেল ও অন্যান্য ওয়েব সফটওয়্যার (যেমন- ফ্যান্টাস্টিকো-ড-লাক্স) এর জন্য আলাদা লাইসেন্স সংগ্রহ করতে বাড়তি খরচও হবে।

ডোমেইন হোস্টিং ব্যবসা সম্পর্কে জানতে আমাকে ফোন করতে পারেন ০১৯১৫৬৩৪৩২৮ নম্বরে।

2 thoughts on “ডোমেইন ও হোস্টিং ব্যবসাঃ পর্ব-এক”

  1. মাহবুব ভাই অনেক অনেক ধন্নবাদ,ডোমেইন ও হোস্টিং ব্যবসা সম্পর্কে সুন্দর পোস্ট করার জন্য।

  2. কি পরিমান আয় করা সম্ভব তার একটা আইডিয়া যদি দিতেন !!!!!

Comments are closed.