জুমলা টিউটোরিয়াল-একঃ জুমলা কি?

জুমলা ধারাবাহিক টিউটোরিয়ালে সবাইকে স্বাগতম। প্রথম পর্বে আপনাদেরকে জুমলা সম্পর্কে প্রয়োজনীয় কিছু বিষয় বর্ণনা করা হবে। অনলাইনের জগৎ এ জুমলা অতি পরিচিত একটি সিএমএস। আমি নিশ্চিত প্রায় সবাই এই সম্পর্কে জানেন অথবা নাম শুনেছেন। অনেকেই হয়ত ব্যবহার করেছেন এছাড়া জনপ্রিয় অনেক ওয়েবসাইটই জুমলাকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে। আমাদের দেশেও বিভিন্ন ওয়েবসাইটে সিএমএস হিসেবে জুমলার ব্যবহার লক্ষ্যনীয়।

জুমলা কি

যাই হোক, প্রথমেই বলেছি জুমলা একটি CMS বা কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (Content Management System)। এরকম আরো একটি জনপ্রিয় সিএমএস হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস যা মূলত ব্লগ প্লার্টফর্ম হিসেবে অধিক ব্যবহৃত হয়। বলাই বাহুল্য জুমলা এবং ওয়ার্ডপ্রেস উভয় সিএমএস গড়ে উঠেছে অতি জনপ্রিয় সার্ভার সাইড ল্যাঙ্গুয়েজ পিএইচপি এবং মাইএসকিউএল ডাটাবেজ এর উপর।

জুমলাকে ব্যবহার করে খুব সহজেই সম্পূর্ন নিজস্ব একটি ডাইনামিক ওয়েবসাইট গড়ে তোলা সম্ভব। বেশ কিছু জনপ্রিয় সংস্থা এবং ওয়েবসাইট জুমলা ব্যবহার করছে এর মধ্যে হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়, লিনাক্স ফাউন্ডেশন এবং জনপ্রিয় গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা মিৎসুবিশি এবং পোর্শের বিভিন্ন ওয়েবসাইট উল্লেখযোগ্য।

জুমলা ব্যবহার করে যে ধরনের ওয়েবসাইট তৈরী করা সম্ভব –

১)  অনলাইন ম্যাগাজিন বা সংবাদপত্র

২) ইকমার্স বা যেকোন ব্যাবসায়িক ওয়েবসাইট।

৩) বিভিন্ন দাতব্য সংস্থার ওয়েবসাইট

৪) স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট

৫) কর্পোরেট ওয়েবসাইট অথবা পোর্টাল।

৬) কমিউনিটি ওয়েবসাইট।

৭) ব্যাক্তিগত ওয়েবসাইট।

৮) সোশ্যাল নেটওয়ার্ক।

এছাড়া আরো অনেক ধরনের ওয়েবসাইট তৈরী করা সম্ভব যা সম্পূর্ন আপনার উপর নির্ভর করে। ফেসবুকের মত জনপ্রিয় সোশ্যাল নেটওয়ার্কের মত সম্পূর্ন ব্যাতিক্রমধর্মী যেকোন ওয়েবসাইটই জুমলা ব্যবহার করে তৈরী করা যায়।

যেসব কারনে জুমলা ব্যবহার করা উচিত –

১) জুমলা সম্পূর্নই বিনামূল্যে ব্যবহার করা যায়। এটি সম্পূর্ন ফ্রীতে ডাউনলোড যায়।

২) এটি ওপেন সোর্স তাই একে ডেভেলপ করাও সম্ভব।

৩) ওপেন সোর্স হওয়ার কারনে এটি তুলনামূলক দ্রুত আপডেট হয় তাই এর পূর্ববর্তী সংষ্করনে থেকে যাওয়া সমস্যার দ্রুত সমাধান পাওয়া যায়।

৪) ইন্টারনেটে জুমলার জন্য প্রচুর টেমপ্লেট ও এক্সটেনসন বিনামূল্যে পাওয়া যায় যা দিয়ে ওয়েবসাইটকে আরো আকর্ষনীয় এবং আধুনিক বৈশিষ্ঠ্যপূর্ন করে তোলা যায়।

৫) একটি ওয়েবসাইটে খুব দ্রূত এবং সহজে পরিচালনা করা যায়।

৬) সাধারনভাবে পরিচালনার জন্য খুব বেশি টেকনিক্যাল জ্ঞানের প্রয়োজন হয় না।

৭) এছাড়া ওয়েব ডেভেলপারদের জন্য জুমলা খুবই সম্ভাবনাময় ক্ষেত্র।

৮) জুমলা দিয়ে তৈরী করা ওয়েবসাইট ডেভেলপ করার জন্য জুমলা ডেভেলপার খুবই সহজলভ্য।

জুমলা ডাউনলোড করতে পারবেন – ডাউনলোড জুমলা

পরবর্তী পর্বসমূহে জুমলার ইতিহাস এবং জুমলা ব্যবহারের প্রক্রিয়াসমূহ আলোচনা করা হবে।

4 thoughts on “জুমলা টিউটোরিয়াল-একঃ জুমলা কি?”

  1. আর্টিকেল লেখার সহজ উপায় হল কারও লিখা একটা আর্টিকেল কপি করে তা নিজের মত করে সাজিয়ে প্রকাশ করা। এই কাজটি করার জন্য আমাদের বেশ কিছু ধাপ অতিক্রম করতে হবে তার প্রথম ধাপ হল আর্টিকেল সংগ্রহকরণ। আমরা বিভিন্ন স্থান থেকে আর্টিকেল সংগ্রহ করতে পারি কিন্তু কোথা থেকে সংগ্রহ করলে ভাল আর্টিকেল পাওয়া যাবে তার কিছু নমুনা তুলে ধরছি।

  2. জুমলা ধারাবাহিক টিউটোরিয়ালে সবাইকে স্বাগতম। প্রথম পর্বে আপনাদেরকে জুমলা সম্পর্কে প্রয়োজনীয় কিছু বিষয় বর্ণনা করা হবে। অনলাইনের জগৎ এ জুমলা অতি পরিচিত একটি সিএমএস। আমি নিশ্চিত প্রায় সবাই এই সম্পর্কে জানেন অথবা নাম শুনেছেন।

  3. This is the rectify জুমলা টিউটোরিয়াল-একঃ জুমলা কি? | টিউটোরিয়ালবিডি diary for anyone who wants to move out out active this message. You attention so such its nigh tiring to converse with you (not that I rattling would want…HaHa). You definitely put a new gyrate on a matter thats been graphic virtually for age. Fastidious lug, just outstanding!

  4. Wow, marvelous blog layout! How long have you been blogging for? you make blogging look easy. The overall look of your website is great, let alone the content!. Thanks For Your article about জুমলা টিউটোরিয়াল-একঃ জুমলা কি? | টিউটোরিয়ালবিডি .

Comments are closed.