পালকহীন ঈগল

পালকহীন ঈগল (Haliaeetus leucocephalus), যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় পাখি এবং জাতীয় প্রতীক। এই জাতীয় পাখির দুইটি প্রজাতি রয়েছে। যাদের মাথা সাদা পালকে আবৃত থাকে এবং পুচ্ছের অংশও সাদা হয় কিন্তু দেহের অন্যান্য অংশ বাদামী। এটি মুলতঃ উত্তর আমেরিকার একটি পাখি।

এদেরকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি কানাডা,আলাস্কা এবং উত্তর মেক্সিকোতে দেখা যায়। সচরাচর সমুদ্রতীর, নদী, সাগর এবং বিশাল জলাধারে যেখানে প্রচুর খাদ্য পাওয়া যায় সেসব জায়গায় এদেরকে দেখতে পাওয়া যায়। এর সচরাচর পূরনো বড় গাছে বাসা করে থাকে। প্রধানতঃ মাছ শিকার করে এরা জীবন ধারন করে । এরা অনেকটা সুবিধাবাদী ধরনের হয়। উৎপেতে থাকে ঝোঁপে এবং সুযোগ বুঝে ছুবল মেরে মাছ শিকার করে নখের সাহায্যে। এরা ঘন্টায় ৫৬-৭০ কিলোমিটার দৌড়াতে পারে।

৪-৫ বছর বয়সে এরা যৌন পরিপক্ক হয়ে উঠে। এরা সাইজে অনেক বড় হয়, দৈর্ঘ্যে ৭০ থেকে ১০২ সেন্টিমিটার(২৮-৪০ ইঞ্চি) এবং পাখার দৈর্ঘ্য ১.৮মিটার এবং ২.৩ মিটার বা ৫.৯ এবং ৭.৫ ফুট, ওজনে ৩-৬.৫ কেজি হয়। পালকহীন ঈগলরাই সবচেয়ে বড় বাসা বানিয়ে থাকে উত্তর আমেরিকার পাখিদের মধ্যে, ৪ মিটার বা ১৩ ফুট গভীর, ২.৫ মিটার বা ৮.২ ফুট চওড়া, যা ওজনে এক মেট্রিক টন পর্যন্ত হয়।

পালকহীন ঈগলের স্ত্রী এবং পুরুষ প্রজাতির মধ্যে দেখতে তেমন কোন পার্থক্য পরিলক্ষিত হবেনা। তবে তাদের কিছু পার্থক্য রয়েছে যেমন আকারে স্ত্রী ঈগল পুরুষ ঈগলের চেয়ে ২৫% বড় হয়। ঠোঁট,পায়ের পাতা এবং চোখের আইরিশএর রঙ উজ্জ্বল বাদামী হয় স্ত্রী পালকহীন ঈগলের।

পালকহীন ঈগলের ঠোঁট বড় ও হুকের মত হয়ে থাকে। অপরিপক্ক ঈগলের পালক বাদামি হয়। নামে পালকহীন হলেও প্রকৃতপক্ষে এরা কিন্তু পালকহীন নয়। একটি পালকহীন ঈগল ২৮ বছর পর্যন্ত বেচে থাকে। বিংশ শতাব্দীতে পালকহীন ঈগলেরা অনেক ঝুঁকিতে রয়েছে। DDT এবং অন্যান্য রাসায়নিক পালকহীন ঈগল এবং অন্যান্য পাখির বিলোপ সাধনের জন্য দায়ী।