disk operating system ডিস্ক অপারেটিং সিস্টেম

ডজ (DOS) নামে পরিচিত ডিস্ক অপারেটিং সিস্টেম।  ১৬ বিট আইবিএম কম্পিউটারের জন্য মাইক্রোসফট এই অপারেটিং সিস্টেমটি ১৯৮১ সালে তৈরী করে। খুব ছোট আকারের এই অপারেটিং সিস্টেমে কমান্ড লেখার মাধ্যমে বেসিক কাজগুলো যেমন কোন প্রোগ্রাম খোলা বা বন্ধ করা, ফাইল ম্যানেজমেন্ট ইত্যাদি কাজগুলো করতে পারে।

আমরা সাধারণত DOS বলতে MS DOS কেই বুঝি যদিও MS DOS ছাড়াও Apple DOS, DOS 360 ইত্যাদি বেশ কিছু ডিস্ক অপারেটিং সিস্টেম ছিল। মূলতঃ ছোট একটি ফ্লপি বা হার্ডডিস্কের মাধ্যমেই কম্পিউটার বুট করে অপারেটিং সিস্টেমটি দিয়ে কাজ করতে পারার কারনে এটিকে ডিস্ক অপারেটিং সিস্টেম বলে থাকে।

এটি আরো উল্লেখ্য যে, উইনডোজের আগের ভার্শণগুলো ডজ ভিত্তিক ছিল। তার মানে ব্যাক ইন্ডে ডজ চলতো এবং ডজ উইনডোজকে চালু করতো। পরে অবশ্য সরাসরি গ্রাফিক্যাল মুড চালু হয়।

এখনো উইনডোজ অপারেটিং সিস্টেমে কমান্ডপ্রোমোট Command Prompt হিসেবে ডজ কমান্ডগুলো উইনডোজে বসে কাজ করে।

প্রকাশ করেছেন

মাহবুব টিউটো

তিনি টিউটোরিয়ালবিডিসহ বেশ কিছু সফল অনলাইন প্রোজেক্টের উদ্যোক্তা ও পরিচালক। তিনি বর্তমানে একটি গ্রুপ প্রতিষ্ঠানে তথ্যপ্রযুক্তিতে কর্মরত আছেন। তার জন্ম, পড়ালেখা এবং আবাস্থল ঢাকায়। ফেসবুকে আর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। তার ইউটিউব চ্যানেলে ঘুরে আসতে পারেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

2 + 2 =